kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩০ জমাদিউস সানি ১৪৪১

নিউ ইয়র্কে তিন দিনব্যাপী বঙ্গবন্ধু বইমেলা সম্পন্ন

শিশুদের জন্য অন্য রকম একটি দিন

বিশেষ প্রতিনিধি, নিউ ইয়র্ক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিউ ইয়র্কে তিন দিনব্যাপী আয়োজিত বঙ্গবন্ধু বইমেলা ২০১৯ সমাপ্ত হয়েছে। সমাপনী দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী ও বাংলাদেশের ইতিহাস জানার সুযোগসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মেলায় অন্য রকম একটি দিন কাটাল প্রবাসী বাংলাদেশি শিশু-কিশোররা। শেষ দিনে তথ্যচিত্র প্রদর্শন এবং কুইজ, চিত্রাঙ্কন, আবৃত্তি প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণীর আয়োজন করা হয়।

গত শুক্রবার নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পিএস ৬৯ স্কুলে বঙ্গবন্ধু বইমেলা ২০১৯-এর আয়োজন করে মুজিব বর্ষ উদ্‌যাপন পরিষদ যুক্তরাষ্ট্র। স্কুল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় সমাপনী আয়োজন।

নিউ ইয়র্কের খ্যাতিমান চিকিৎসক ডা. ফেরদৌস খন্দকারের উদ্যোগে সমাপনী দিনে শিশুদের জন্য ব্যতিক্রমী আয়োজন করা হয়। এতে প্রথমে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর ইংরেজি ভাষায় নির্মিত একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়। সাংবাদিক ও লেখক শামীম আল আমিনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে তথ্যচিত্রটি পরিচালনা করেন ডা. ফেরদৌস খন্দকার। এরপরই শিশুদের সামনে বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের কথা তুলে ধরেন বক্তারা। পরে এসব তথ্যের ওপর শিশুরা কুইজে অংশ নেয়। ছিল চিত্রাঙ্কন ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতাও।

সমাপনী দিনে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক ও অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন। মঞ্জুর কাদেরের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন বেলাল বেগ, কৌশিক আহমেদ, ডা. ফেরদৌস খন্দকার, মিশুক সেলিম, শিবলি সাদিক শিবলু প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে লেখক আনিসুল হক বলেন, প্রবাসে এটি সত্যিই ব্যতিক্রমী একটি আয়োজন। শিশুদের অংশগ্রহণ এবং তারা যেভাবে নিজেদের মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে, বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতিকে ধারণ করেছে, তাতে সত্যিই আমি আনন্দিত।’ মেহের আফরোজ শাওন প্রবাসী মা-বাবাকে কৃতিত্ব দিয়ে বলেন, ‘তারা (শিশুরা) যেভাবে বাংলা উচ্চারণে কবিতা আবৃত্তি করল, তাতে আমি মুগ্ধ হয়ে গেছি।’

এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর বিপুল পাঠক সমাগম ও দর্শনার্থীদের উপস্থিতিতে পিএস ৬৯-এ বেলুন উড়িয়ে বঙ্গবন্ধু বইমেলার উদ্বোধন করেন লেখক ও সাংবাদিক আনিসুল হক। ওই সময় রাজনীতিবিদ, শিক্ষক, সাহিত্যিক, সংস্কৃতিকর্মীসহ প্রবাসীদের মিলনমেলায় পরিণত হয় গোটা এলাকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা