kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

উপাচার্যকে ফের ‘কালো পতাকা’ প্রদর্শন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ ভর্তি চলাকালে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামকে ফের কালো পতাকা প্রদর্শন করেছেন আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এর আগে গত রবিবার উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে একই কর্মসূচি পালন করা হয়। আর পরীক্ষার কেন্দ্রে উপাচার্যকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হলেও গত দুই দিনই ‘ঝক্কিঝামেলা ছাড়াই’ তিনি কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন। এদিকে গতকাল ভর্তি পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে দুই পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে তিন দফা দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সর্বশেষ গত ১৮ সেপ্টেম্বর আলোচনায় বসেন প্রশাসনের কর্তাব্যক্তি ও আন্দোলনকারীরা। তবে আলোচনা ফলপ্রসূ না হওয়ায় উপাচার্যকে ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়। একই সঙ্গে ১ অক্টোবরের মধ্যে পদত্যাগের জন্য উপাচার্যকে সময় বেঁধে দেওয়া হয়।

গতকালের ‘কালো পতাকা’ প্রদর্শন কর্মসূচি পালিত হয় সমাজবিজ্ঞান অনুষদে। ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে উপাচার্যবিরোধী এ কর্মসূচি চলে আসছে। এ বিষয়ে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য চেয়েছিলেন আমরা ভর্তি পরীক্ষা বাধাগ্রস্ত করি। কিন্তু কোমলমতি ভর্তীচ্ছুদের কোনো ক্ষতি আমরা করব না।’

তিনি আরো বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষা চলছে বলে আমরা নমনীয়ভাবে আমাদের কর্মসূচি পালন করছি। আমাদের নমনীয়তাকে দুর্বলতা ভাববেন না। ১ অক্টোবরের মধ্যে আপনি সসম্মানে পদত্যাগ না করলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অচলাবস্থার দায় নিয়ে আপনি পদত্যাগ করতে বাধ্য হবেন।’

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সোহেল রানা, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক শামীমা সুলতানা, সহযোগী অধ্যাপক নাজমুল হাসান তালুকদার, অধ্যাপক তারেক রেজা, নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস, অধ্যাপক মির্জা তাসলিমা সুলতানা, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক রায়হান রাইন, অধ্যাপক কামরুল আহসান, পরিবেশবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু। প্রতিবাদী এ কর্মসূচিতে অংশ নেন জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট, ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জাবি শাখার নেতাকর্মীরা।

উপাচার্যের কেন্দ্র পরিদর্শন : পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী গতকালও উপাচার্যকে পরীক্ষার কেন্দ্রে বাধা দিতে পারেননি আন্দোলনকারীরা। কোনো ধরনের বাধা ছাড়াই আগের দিনের মতো গতকালও কেন্দ্র পরিদর্শন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। পদার্থবিজ্ঞান ভবন কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজুরুল হক, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ ও প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা।

দুই পরীক্ষার্থী বহিষ্কার : গতকাল একটি শিফটের পরীক্ষায় প্রশ্ন বদল করার দায়ে দুই পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাঁরা চলতি শিক্ষাবর্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন না।

প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান বলেন ‘দুজন পরীক্ষার্থী নিজেদের মধ্যে প্রশ্ন বদল করেছে। পরে পরীক্ষার হলেই মুচলেকা নেওয়া হয়েছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের এ বছরের সব পরীক্ষায় তাঁদের নিষিদ্ধ করেছি।’

তিন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে লাঞ্ছনার অভিযোগ : ভর্তি পরীক্ষায় শৃঙ্খলার দায়িত্বে নিয়োজিত রোভার স্কাউটের এক সদস্য এবং কর্মরত একজন সাংবাদিককে শারীরিক লাঞ্ছনা ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। গত রবিবার নতুন কলা অনুষদ ভবনে ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্তদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন রোভার স্কাউটের সিনিয়র রোভার মেট মো. খলিলুর রহমান।

অভিযুক্তরা হলেন, দর্শন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (৪৭তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী কাইয়ূম, রাফিদ ও আরিফ। তাঁরা সবাই মীর মশাররফ হোসেন হলের আবাসিক শিক্ষার্থী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা