kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

খুলনায় সংবাদ সম্মেলন

বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগ চাইলেন প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা

খুলনা অফিস   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ এনে তাঁর পদত্যাগ দাবি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা। গতকাল শনিবার দুপুরে খুলনা প্রেস ক্লাবের হুমায়ূন কবির বালু মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানানো হয়।

বশেমুরবিপ্রবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন ও  বশেমুরবিপ্রবি খুলনা জেলা সমিতি যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করে। এর আগে প্রাক্তন এই শিক্ষার্থীরা নগরীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন।

প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা বলেছেন, ছাত্র কল্যাণ ফান্ড, জাতির পিতার মুর‌্যাল ও শহীদ মিনার নির্মাণ প্রকল্প থেকে অর্থ আত্মসাৎ করেছেন উপাচার্য। এর মধ্যে ছাত্রকল্যাণ ফান্ড থেকে গ্রামবাসীর সঙ্গে বিরোধ মীমাংসার মিটিংয়ে ছয়-সাতজনের আপ্যায়নের জন্য ৪০ হাজার টাকা এবং অন্য এক ঘটনায় এক লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়েছেন।

প্রাক্তন ছাত্র সম্রাট বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, উপাচার্য ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিন বিএনপি-জামায়াতের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন। তিনি ১৯৯৪-৯৫ সালে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত সাদা প্যানেলের পক্ষে নির্বাচন করেন। জিয়ার পক্ষে সাফাই গেয়ে বই লিখেছিলেন। গত পাঁচ বছরেও বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির পিতার মুর‌্যাল ও শহীদ মিনার হয়নি। অথচ এ প্রকল্পে তিনি দুই কোটি ৪০ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়েছেন। ভর্তি বাণিজ্য, ভিসি কোঠা চালু, নারী কেলেঙ্কারিসহ তাঁর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে। বিচার বিভাগীয় তদন্ত করলেই সব প্রকাশিত হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা