kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জামালপুরের সাবেক ডিসির বিরুদ্ধে তদন্তের সময় বাড়ল ১০ দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জামালপুরের সাবেক ডিসি আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে চলমান তদন্তের মেয়াদ দ্বিগুণ করা হয়েছে। গত ২৫ আগস্ট গঠিত তদন্ত কমিটিকে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। গত রবিবার ছিল শেষ কার্যদিবস। গতকাল সোমবারের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা ছিল। এর মধ্যে তদন্ত শেষ না হওয়ায় আরো ১০ কার্যদিবস সময় বাড়ানোর অনুরোধ করলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ তাতে সায় দিয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসনের দায়িত্বে থাকা যুগ্ম সচিব ড. মুশফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে গঠিত তদন্ত কমিটি গত ২৯ আগস্ট সরেজমিনে জামালপুর ঘুরে আসে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এরপর সচিবালয়ে অভিযুক্ত সাবেক ডিসি আহমেদ কবীরের সঙ্গে কথা বলেছে তদন্ত কমিটি। এখন এসংক্রান্ত প্রতিবেদন লেখার কাজ চলছে। সেই সঙ্গে একজন জেলা প্রশাসকের খাসকামরার ভিডিও যারা ধারণ ও প্রচার করেছে তাদের বিষয়েও বিস্তারিত তথ্য থাকবে তদন্ত প্রতিবেদনে।

গত ২২ আগস্ট জামালপুরের ওই সময়ের ডিসি আহমেদ কবীর ও তাঁর অফিসের এক নারীকর্মীর গোপন সম্পর্কের ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর আহমেদ কবীর ভিডিওটি তাঁর খাসকামরার বলে সাংবাদিকদের কাছে স্বীকার করলেও ভিডিওর পুরুষ ব্যক্তিটি তিনি নন বলে দাবি করেন। কিন্তু ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার অফিস তাঁর বিরুদ্ধে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে তাত্ক্ষণিক প্রতিবেদন দেয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২৫ আগস্ট তাঁকে জেলা থেকে প্রত্যাহার করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ওএসডি করা হয়। একই দিন তদন্ত কমিটি গঠন করে বিস্তারিত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়।

তদন্ত কমিটিতে সদস্যসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মন্ত্রিপরিষদ শৃঙ্খলা অধিশাখার উপসচিব ছাইফুল ইসলাম। এ ছাড়া জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) একজন করে প্রতিনিধি তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা