kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আত্মীয়র বিরুদ্ধে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



সিলেটের বিশ্বনাথে এক তরুণীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তাঁর এক আত্মীয়র বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তরুণী গত শনিবার রাতে থানায় মামলা করেন। রাতেই আসামি ফরিদ মিয়াকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি উপজেলার কোনাউড়া নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত চেরাগ আলীর ছেলে।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ওই তরুণীর বাড়ি ছাতক উপজেলায়। পাঁচ বছর আগে তরুণীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলেন ফরিদ মিয়া। একপর্যায়ে ফরিদ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময় তাঁকে ধর্ষণ করেন ফরিদ। কিন্তু তিনি ফরিদের সঙ্গে বিয়ের আশায় বিষয়টি প্রকাশ করেননি। গত ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে তরুণীকে তাঁর বাড়ি থেকে বেড়ানোর জন্য নিজ বাড়িতে নিয়ে যান ফরিদ। এদিন রাতে তিনি তরুণীকে আবার ধর্ষণ করেন। তরুণী কান্নাকাটি ও চিৎকারের চেষ্টা করলে তাঁর মুখ চেপে ধরে ভয়ভীতি দেখান ফরিদ। এরপর তরুণীর পরিবার বিচার চাইলে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করেন। কিন্তু কোনাউড়া নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত বশই মিয়ার ছেলে (ফরিদের মামাতো ভাই) বাবুল মিয়া তরুণীকে ৩০ হাজার টাকা দিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা