kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে শিক্ষক পেটানোর অভিযোগ

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় ইউনিয়ন পরিষদের এক চেয়ারম্যান স্কুল শিক্ষককে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী অমূল্য রতন হালদার উপজেলার গজালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। আর অভিযুক্ত উত্তম কুমার বাড়ৈকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। অভিযোগ অনুযায়ী, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় কান্দি ইউনিয়নের ধারাবাশাইল বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, গত বৃহস্পতিবার উপজেলার মাচারতারা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে পড়া না পারায় মারধর করেন গণিতের শিক্ষক আশীষ চন্দ্র বড়াল। ঘটনাটি ওই ছাত্রের পরিবার স্কুলের প্রধান শিক্ষক নারায়ণ চন্দ্র হালদারকে জানায়। এরপর বিষয়টি জানানো হয় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রীনা রানী মণ্ডলকেও, যিনি ইউপি চেয়ারম্যান উত্তম কুমার বাড়ৈর স্ত্রী। অন্যদিকে অমূল্য রতনের ভাই হলেন নারায়ণ চন্দ্র হালদার।

অমূল্য রতনের অভিযোগ, এ নিয়ে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ধারাবাশাইল বাজারে উত্তম কুমার বাড়ৈর সঙ্গে তাঁর কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে চেয়ারম্যান ও তাঁর ভাই মনি বাড়ৈ মিলে তাঁকে মারধর করেন।

উত্তম কুমার বাড়ৈ বলেন, ‘অমূল্য হালদারকে মারধর করিনি। মাচারতারা স্কুলের বিষয়টি নিয়ে তিনি মা-বাপ তুলে গালাগাল করেন। তখন আমার ভাইয়ের সঙ্গে একটু হাতাহাতি হয়।’

কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, ‘শিক্ষকের গায়ে হাত দেওয়াটা ন্যক্কারজনক ঘটনা। উভয় পক্ষের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়েছি। আমরা অভিযোগের সত্যতা যাচাই করছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা