kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গান না গাওয়ায় ছাত্রকে কান ধরে উঠবোস!

নাটোর প্রতিনিধি   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রেণিকক্ষে শিক্ষকের নির্দেশে গান না গাওয়ায় নাটোরে এক ছাত্রকে ৩০০ বার কান ধরে উঠবোস করানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার  বড়াইগ্রাম উপজেলার রামাগাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রের অভিভাবক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

নির্যাতনের শিকার নাজমুস সাদিক রাফি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমা খাতুন ও বনপাড়া এলাকার কলেজ শিক্ষক আব্দুস সালামের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার সহকারী শিক্ষক দীপেন্দ্রনাথ সরকার পঞ্চম শ্রেণিতে ক্লাস নিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি রাফিকে একটি গান গাইতে বলেন। এ সময় সে গান জানে না জানিয়ে জাতীয় সংগীত গাইতে চায়। শিক্ষক তখন তাকে আধুনিক গান গাইতে বলেন। কিন্তু রাফি তাতে রাজি না হলে তাকে ৩০০ বার কান ধরে উঠবোস করার নির্দেশ দেন শিক্ষক। পরে বাধ্য হয়ে রাফি শিক্ষকের নির্দেশ পালন করে। এ সময় ওই শিক্ষক বেত হাতে নিয়ে রাফির পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন বলে সহপাঠীরা জানিয়েছে। পরে বাড়ি এসে  রাফি অসুস্থ হয়ে পড়ে। এরপর তাকে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নেওয়া হয়। শিক্ষক দীপেন্দ্রনাথ সরকার বলেন, ক্লাসের অংশ হিসেবে তিনি শিক্ষার্থীদের মধ্যে একজনকে গান গাইতে বলেন। এ সময় রাফি জানায়, সহপাঠী এক ছাত্রী গাইলে সে গাইবে। পরবর্তী সময়ে ওই ছাত্রী গান গায়। এরপর রাফি গান না গেয়ে স্বঘোষিতভাবে কান ধরে উঠবোস করে। ক্লাসে এক ধরনের বিনোদনের মতোই সহপাঠীদের সঙ্গে রাফি এটা করে।

প্রধান শিক্ষক নাজমা খাতুন বলেন, ‘বৃহস্পতিবার আমি ওই শিক্ষককে ডেকে বিষয়টি জানতে চাই। এ সময় তিনি আমাকেও অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন। বিষয়টি আমি শিক্ষা অফিসারকে জানিয়েছি।’

সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাইদুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি দুঃখজনক। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা