kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সাগরে লঘুচাপ

সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশজুড়ে ভাপসা গরমের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হয়েছে লঘুচাপ। গতকাল বুধবার তৈরি হওয়া লঘুচাপটি এখন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর, তত্সংলগ্ন ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে অবস্থান করছে। লঘুচাপের প্রভাবে দেশের চারটি সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া কর্মকর্তা আবুল কালাম মল্লিক জানান, লঘুচাপটি উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও পশ্চিমবঙ্গ এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, মোংলা, কক্সবাজার ও পায়রা বন্দরকে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

অবশ্য আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এবারের বর্ষায় বঙ্গোপসাগরে যতগুলো লঘুচাপ নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে, তার সবই পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশা উপকূল দিয়ে অতিক্রম করেছে, বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত আনেনি। এবারের লঘুচাপটি নিম্নচাপ বা ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেওয়ার আশঙ্কা ক্ষীণ। উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টি হলেও সেটি দুর্যোগের পর্যায়ে যাবে না।

টানা দুই সপ্তাহ ধরে দেশব্যাপী মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। দিনের তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের এদিক-ওদিক অবস্থান করছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। আবহাওয়া অফিসের তথ্য বলছে, গতকাল সিলেটে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ ছাড়া শ্রীমঙ্গল ও তেঁতুলিয়ায় ৩৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং তত্সংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি বর্তমানে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তত্সংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। লঘুচাপের প্রভাবে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা