kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানালেন

রোহিঙ্গাদের জোর করে ভাসানচরে নেবে না সরকার

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের সরকার জোর করে ভাসানচরে পাঠাবে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা তাদের দেশ মিয়ানমারে ফিরে গেলেই বাংলাদেশ খুশি হবে। ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের পরিকল্পনার বিষয়ে তিনি বলেন, কক্সবাজারে রোহিঙ্গারা বেশ গাদাগাদি করে আছে। তা ছাড়া বর্ষার সময় ভূমিধসে মৃত্যুর আশঙ্কাও ছিল। এমন প্রেক্ষাপটে রোহিঙ্গাদের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে তাদের মধ্যে প্রায় এক লাখ জনকে ভাসানচরে নেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। সেখানে যাওয়ার পর তাদের মাছ ধরাসহ কিছু অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের সুযোগ দেওয়ার কথাও বলা হয়েছিল।

মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের যখন বলা হলো তখন তারা, বিশেষ করে তাদের যারা সেবা দেয় তারা রাজি হয়নি। রোহিঙ্গাদের সেবা দেওয়া ব্যক্তিরা রিসোর্ট শহরে (কক্সবাজারে) থাকে। তিনি বলেন, একটি কারিগরি দল রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের পরিকল্পনা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে। তবে বাংলাদেশ সরকারের নীতিগত অবস্থান হলো, কাউকেই জোর করে ফেরত পাঠানো হবে না।

ওই সময় মন্ত্রী জানান, খুব সুন্দর করে ভাসানচর গড়ে তোলা হয়েছে। উঁচু বাঁধ দেওয়া হয়েছে। বরিশাল থেকে চট্টগ্রামে নৌ রুটে স্টপওভার হবে ভাসানচর।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, গত ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গাদের বড় সমাবেশের পর তাঁরা অনেক বিষয়ে আলোচনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা চাই, পরিবেশের উন্নতি হবে। আমাদের উদ্দেশ্য প্রত্যাবাসন। এ ব্যাপারে কেউ বাধা দিলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।’

আসাম ইস্যু : ভারতের আসাম রাজ্যে নাগরিক তালিকা প্রকাশের পর সেখানে ওই দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সফর বিষয়ে সাংবাদিকরা দৃষ্টি আকর্ষণ করলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন বলেন, সেটি তাঁদের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা