kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জামাইকে কুপিয়ে খালে ফেলল শ্বশুরবাড়ির লোকজন!

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরে জোবায়ের হোসাইন (৩৪) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে খালে ফেলার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। গত সোমবার রাতে সদর উপজেলার নেয়ামতপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জোবায়েরকে উদ্ধার করে প্রথমে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

জোবায়ের লক্ষ্মীপুর পৌরসভার বাঞ্ছানগর এলাকার মৃত ইসমাইল হোসেনের ছেলে। তিনি ঢাকায় একটি বেসরকারি কম্পানিতে চাকরি করেন।

জোবায়ের ও তাঁর ভাতিজা মো. শাহজাহান জানান, সদর উপজেলার নেয়ামতপুর গ্রামের আমিনুল ইসলাম খসরুর মেয়ে ফারিহার সঙ্গে তিন বছর আগে জোবায়েরের বিয়ে হয়। সম্প্রতি জোবায়েরের কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা ধার নেন শাশুড়ি নাজমুন নাহার। এরপর জমি কেনার কথা বলে আরো পাঁচ লাখ টাকা নেন শ্বশুর। ওই পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে জামাই-শ্বশুরের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। একপর্যায়ে জোবায়েরের স্ত্রী ফারিহা স্বামীর ঘরে থাকা পাঁচ লাখ টাকা ও ১১ ভরি স্বর্ণালংকারসহ দুই সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান। এ ঘটনায় আদালতে মামলা করেন জোবায়ের। উদ্ভূত সমস্যার সমাধান ও স্ত্রীকে ফেরত দেওয়ার কথা বলে গত সোমবার বিকেলে জোবায়ের ও তাঁর পরিবারের লোকজনকে ডেকে নেয় শ্বশুরবাড়ির লোকজন। সেখান থেকে রাতে মোটরসাইকেলে লক্ষ্মীপুর শহরে ফেরার পথে শ্বশুর আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে মামাশ্বশুর আবদুল হক ও তাঁর অনুসারীরা অস্ত্র ঠেকিয়ে জোবায়েরকে নিয়ে যায়। একপর্যায়ে নেয়ামতপুর এলাকার একটি কালভার্টের ওপর তাঁকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। এ সময় জোবায়ের অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাঁকে খালে ফেলে দেওয়া হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা