kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বরিশালে ৭০ শতাংশ চিকিৎসক পদই শূন্য

অনেক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চলছে একজন চিকিৎসক দিয়ে

আজিম হোসেন, বরিশাল   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চারপাশে মেঘনার জলস্রোত। সেই জল ঘিরেই বরিশালের উপজেলা হিজলা। এখান থেকে বরিশাল শহরে যেতে পারি দিতে হয় দীর্ঘ জলপথ। তাই এই উপজেলার অধিকাংশ মানুষের চিকিৎসাসেবা নেওয়ার একমাত্র সম্বল ৫০ শয্যার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। প্রতিদিন এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবা নিতে আসে শতাধিক রোগী। কিন্তু অধিকাংশই হতাশ হয়ে ফেরত যায় সেবা না পেয়ে। চিকিৎসক সংকটই এর প্রধান কারণ। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে ১০ চিকিৎসকের সৃষ্ট পদ থাকলেও রয়েছে মাত্র দুজন। হিজলা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. মামুনুর রশীদ বলেন, ‘আমরা একাধিকবার চিকিৎসক চেয়ে আবেদন করেছি। কিন্তু কোনো ফল পাইনি। তাই যেসব রোগী এখানে সেবা নিতে আসে তাদের আমরা পরিপূর্ণ সেবা দিতে পারি না।’

শুধু হিজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সই নয়, বরিশাল বিভাগের সরকারি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক পদের প্রায় ৭০ শতাংশই শূন্য। পদের বিপরীতে পুরো বিভাগে মাত্র ৩০ শতাংশ চিকিৎসক কর্মরত রয়েছেন। অনেক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শুধু একজন চিকিৎসক দিয়ে সেবা কার্যক্রম চলছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক কার্যালয় থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বরিশাল বিভাগের ছয় জেলায় মোট চিকিৎসকের পদ এক হাজার ১৩১টি। এর মধ্যে শূন্য রয়েছে ৭৬২টি। অর্থাৎ বিভাগে ৭০ শতাংশ চিকিৎসকের পদই শূন্য। বরিশালে ২৫৮ জন চিকিৎসকের পদের মধ্যে শূন্য রয়েছে ১৫৭টি। পটুয়াখালীতে ২২৩ চিকিৎসকের বিপরীতে শূন্য ১৪৭টি পদ। ভোলায় ২০৯ চিকিৎসক পদের বিপরীতে শূন্য ১৪৬টি। পিরোজপুরে ১৭২ পদের বিপরীতে শূন্য ১১৬টি। বরগুনায় ১৬৫ চিকিৎসকের মধ্যে শূন্যপদ ১৩০টি। ঝালকাঠিতে ১০৪ জন চিকিৎসকের বিপরীতে শূন্যপদ ৬৬টি।

এ ব্যাপারে বরিশাল জেলা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মাহামুদ হাসান বলেন, ‘চিকিৎসক সংকটের কথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সচিব জানেন। সারা দেশের মধ্যে বরিশাল বিভাগে সংকট বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক ডা. আবদুর রহিম বলেন, বিভাগের ৪০টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং ছয় জেলা শহরে জেনারেল হাসপাতাল রয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানগুলোতে চিকিৎসক সংকট প্রকট। সংকটের বিষয়টি জানিয়ে এবং চিকিৎসক চেয়ে মন্ত্রণালয়ে নিয়মিত প্রতিবেদন পাঠানো হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা