kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ১৯ নির্দেশনা

মামলাজট কমাতে ৬৪ জেলায় বিশেষ কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিনিধি   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিম্ন আদালতের মামলাজট কমানো এবং ফৌজদারি মামলাসংক্রান্ত সমস্যা দ্রুত মিটিয়ে ফেলতে প্রতিটি জেলায় বিশেষ কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। ‘কেস কো-অর্ডিনেশন কমিটি’ (সিসিসি) শীর্ষক এই কমিটির মাধ্যমে সামগ্রিকভাবে জেলা পর্যায়ে মামলাসংক্রান্ত ঝামেলা কমিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে সরকার। এতে বিনা বিচারে আটককৃতরা দ্রুত মুক্তি পাবে। প্রয়োজনে ভিডিও কলের মাধ্যমে কারবন্দিরা স্বজনদের সঙ্গে কথা বলতে পারবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জেলা ম্যাজিস্ট্রেসি পরিবীক্ষণ শাখা থেকে গত মঙ্গলবার জারি হওয়া পরিপত্র অনুযায়ী, ফৌজদারি মামলায় দীর্ঘদিন আটক কারাবন্দিদের বিচার দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য এমন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সে সঙ্গে এসব মামলার আসামিদের আইনি সহায়তা ও এসংক্রান্ত সব বিভাগের কাজ সমন্বয় করবে সিসিসি।

ফৌজদারি বিচারব্যবস্থায় স্থানীয় সমস্যাগুলো চিহ্নিতকরণে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা রয়েছে। সেই আলোকে স্থানীয়ভাবে এসব সমাধানে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যায় তা খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া দীর্ঘ মেয়াদে পেন্ডিং মামলাগুলো পর্যালোচনা করে দ্রুত নিষ্পত্তিতে সহযোগিতা প্রদান ও মামলা নিষ্পত্তির অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার সুপারিশও করবে কমিটি।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ১৯ দফা নির্দেশনায় আরো রয়েছে জেল থেকে মুক্তির পর আসামিদের পরিবার ও সমাজে সম্পৃক্তকরণে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান ও তদারকি করা; পুনর্বাসনের মাধ্যমে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করতে কারাবন্দিদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা; জীবনমুখী কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও প্রয়োজনে ঋণের ব্যবস্থা করা; জামিনে মুক্ত আসামি যেন একই অপরাধে পুনরায় জড়িয়ে না পড়ে সে জন্য তাদের পেশার প্রতি নজর রাখা এবং মাদকের প্রতি আসক্তি প্রতিরোধ ও নৈতিকতা-মূল্যবোধ সৃষ্টির জন্য সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ।

আদালতে আসামি ও সাক্ষীদের হাজিরা নিশ্চিতকরণ এবং মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে উদ্ভাবনী উদ্যোগ গ্রহণে কমিটি দায়িত্ব পালন করবে। কমিটি এর বাইরেও যেসব বিষয় আমলে নিতে চাইবে সেসব বিষয় নিয়মিত বৈঠকের মাধ্যমে শাসন বিভাগ ও বিচার বিভাগকে অবহিত করতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা