kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মৌলভীবাজারে ভূমিসচিব

দেশের মালিক জনগণ তাদের সেবা দিতে হবে

আরো বললেন, যারা ঘুষ খায়, তারা গু খায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, মৌলভীবাজার   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মাক্ছুদুর রহমান পাটওয়ারী বলেছেন, প্রজাতন্ত্রের মালিক জনগণ। তাই সব কর্মকর্তাকে মালিকের সেবা করতে হবে। অনেক সরকারি কর্মকর্তা মনে করেন প্রজাতন্ত্রের মালিক নিজেরাই। তাঁরা সাধারণ মানুষের ফাইল আটকিয়ে ঘুষ দাবি করেন। এ ধরনের কর্মকর্তা দেশের জন্য, জনগণের জন্য ভালো নয়। তিনি বলেন, ‘যারা ঘুষ খায়, তারা গু খায়। প্লিজ এই গু খাবেন না।’ এ ছাড়া বেতন-ভাতা বৃদ্ধির পরও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতিতে জড়ানো নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

গতকাল সোমবার মৌলভীবাজারে স্বচ্ছ ও জনবান্ধব ভূমি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিসচিব মাক্ছুদুর রহমান পাটওয়ারী এসব কথা বলেন। মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এম সাইফুর রহমান অডিটরিয়ামে এক দিনের এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন।

‘স্বচ্ছ, দক্ষ ও জনবান্ধব ভূমি ব্যবস্থাপনা’ বিষয়ে শুদ্ধাচার ও উত্তম চর্চা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ফজলুল আলী, সাবেক অতিরিক্ত সচিব বনমালী ভৌমিক, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব রুকন উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ারুল হক, মৌলভীবাজার প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবদুল হামিদ মাহবুব, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিছবাহুর রহমান, কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম শফি আহমদ সলমান প্রমুখ।

ভূমিসচিব বলেন, ডিসেম্বরের মধ্যেই ভূমির সব কাগজপত্র অনলাইনে নিয়ে আসতে হবে। ভূমির কোনো কাগজপত্র পেতে যেন জনগণের কোনো ধরনের দুর্ভোগ পোহাতে না হয়, এই লক্ষ্যে এটা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, অভিযোগ পেলেই ভূমি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে মন্ত্রণালয়।

সচিব বলেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি করেছে সরকার। এর পরও কেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দুর্নীতিতে জড়াবেন? এসি ল্যান্ডদের উদ্দেশে বলেন, নামজারি পর্চা পেতে জনগণ যেন হয়রানির শিকার না হয়। এ ধরনের কোনো অভিযোগ এলে মন্ত্রণালয় অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। জনগণের সঙ্গে মিশতে হবে, তাদের সমস্যা শুনতে হবে। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

কর্মশালার শেষের দিকে প্রধান অতিথি কর্মশালায় উপস্থিত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শপথ বাক্য পাঠ করান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা-কর্মচারী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমশিনার, জেলার সব পর্যায়ের ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা