kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ ও বেতন পরিশোধের দাবি

আশুলিয়ায় কর্মবিরতি বিক্ষোভ সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের একটি তৈরি পোশাক কারখানায় শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করা, ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, সময়মতো বেতন পরিশোধসহ বিভিন্ন দাবিতে কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা। একপর্যায়ে কারখানা কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে কারখানার চার নারী শ্রমিক আহত হন। গতকাল রবিবার দুপুরে আশুলিয়ার জামগড়ায় ‘ইএসকেই ক্লথিং লিমিটেড’ কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন রাজিয়া (৩২), ঝুমা (২৪), হাসনা (২২) ও আমেনা (২০)। তাঁরা ইএসকেই ক্লথিং লিমিটেডের সুইং অপারেটর। তাঁদের স্থানীয় নোভা ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আন্দোলনরত শ্রমিকরা জানায়, প্রতি মাসেই কারখানা কর্তৃপক্ষ নির্ধারিত তারিখে বেতন পরিশোধে গড়িমসি করে। সময়মতো বেতন ও অতিরিক্ত কাজের মজুরি পরিশোধ, শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করাসহ বিভিন্ন দাবিতে তারা আন্দোলন চালিয়ে আসছে। গতকাল দুপুরে শ্রমিকরা কারখানায় ঢুকলে কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শ্রমিকদের তর্ক-বিতর্ক ও সংঘর্ষ হয়। এ সময় কারখানার বাইরের সন্ত্রাসীরা শ্রমিকদের ওপর হামলা চালায়। এতে চার শ্রমিক আহত হন।

কারখানাটির সুইং অপারেটর সাকিলা বলেন, কোনো মাসে আন্দোলন ছাড়া তাঁরা বেতন নিতে পারেন না। গত বৃহস্পতিবার একযোগে বিনা কারণে ৩০ জন শ্রমিককে ছাঁটাই করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। এ কারণে শ্রমিকরা শনিবার থেকে কাজ না করে আন্দোলন করছে। গতকালের হামলার সুষ্ঠু বিচার না হলে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

কারখানার এজিএম নজরুল ইসলাম বলেন, কারখানার কিছু শ্রমিক সাধারণ শ্রমিকদের নিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। তাই ৩০ জনকে প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই ছাঁটাই করা হয়। এ নিয়ে শ্রমিকরা কয়েক দিন ধরে আন্দোলন করে আসছিল। গতকাল দুপুরে আন্দোলনের সময় কারখানার কয়েকজন কর্মকর্তা শ্রমিকদের সঙ্গে আলাপ করতে গেলে শ্রমিকরাই কর্মকর্তাদের ওপর হামলা চালায়। শ্রমিকদের সঙ্গে তাঁরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। অচিরেই বিষয়টির সমাধান হবে বলে তিনি আশাবাদী।

শিল্প পুলিশ-১-এর পুলিশ সুপার (এসপি) সানা সামিনুর রহমান বলেন, ঘটনাটি ঘটার সঙ্গে সঙ্গে শিল্প পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে কারখানাটি শিল্প পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে। কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পুলিশের আলোচনা হয়েছে। আজ থেকে শ্রমিকরা কাজে ফিরবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা