kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ডিএনসিসির ‘চিরুনি অভিযান’

আরো ১৩৪ বাড়িতে এডিসের লার্ভা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) চলমান ‘চিরুনি অভিযানে’ আরো ১৩৪টি বাড়িতে এডিসের লার্ভার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এসব বাড়ির মালিককে সতর্ক করে লাল রঙের স্টিকার ঝুলিয়ে দিয়েছে ডিএনসিসি। গতকাল রবিবার ডিএনসিসির ৩৬টি ওয়ার্ডে চিরুনি অভিযান শেষে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, বাড়ি বাড়ি গিয়ে এডিসের লার্ভা ধ্বংস করার অভিযানের পঞ্চম দিনে ডিএনসিসির ৩৬টি ওয়ার্ডে ১০ হাজার ১৪৫টি বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করা হয়েছে। এ ছাড়া পাঁচ হাজার ৭১৬টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী জমে থাকা পানি পাওয়া গেছে। এডিস মশার বংশবিস্তারের উপযোগী ওই সব স্থান পরিষ্কার করেছেন ডিএনসিসির মশক ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। পুরনো ৩৬টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলরা সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের চিরুনি অভিযানে অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছে ডিএনসিসি।

গত ২৫ আগস্ট শুরু হওয়া চিরুনি অভিযানে গতকাল পর্যন্ত ৮৩ হাজার ৯৬০টি বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করে মোট এক হাজার ৬৭৪টিতে এডিস মশার লার্ভা পেয়েছে ডিএনসিসি। এ ছাড়া ৪৫ হাজার ৩১৫টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী জমে থাকা পানি পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

চিরুনি অভিযানের বাইরেও সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন। বাড়িতে এডিসের লার্ভা পাওয়া গেলে সতর্ক করা হচ্ছে। তবে কোনো বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে লার্ভা পাওয়া গেলে জেল ও জরিমানা করা হচ্ছে।

ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মমিনুর রহমান মামুন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাড়ির মালিককে আপাতত জরিমানা করা হচ্ছে না। শুধু সাবধান করা হচ্ছে। সতর্ক করার পরও চিরুনি অভিযানে অনেক বাড়িতে মশার লার্ভা পাওয়া যাচ্ছে। ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে নগরবাসীর আরো সচেতন হওয়া দরকার।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা