kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাসচাপায় আহত সাব্বিরকে বাঁচানো গেল না

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর পল্লবীতে বাসচাপায় আহত শিক্ষার্থী সাব্বিরকে (১৩) বাঁচানো গেল না। শনিবার বিকেলে প্রজাপতি পরিবহনের একটি বাসের চাপায় শিশুটি গুরুতর আহত হয়। তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। গতকাল রবিবার ভোর সাড়ে ৪টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই তার মৃত্যু হয়। সাব্বির মিরপুর ১২ নম্বরের নাহার একাডেমি স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ছিল। এ ঘটনার পর প্রজাপতি পরিবহনের বাসটি জব্দ করা হয়েছে। বাসের চালক সনককে (২৫) আটক করা হয়েছে।

নিহতের মামা সুমন নাকিব কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ময়নাতদন্ত শেষে আমরা লাশ নিয়ে এসেছি। তার মা বারবার জ্ঞান হারাচ্ছে। বাবার অবস্থাও ভালো না। কথা বলছে তো বলছে না! ছোট বোন সাদিয়া আক্তার (৭) বারবার ভাইকে দেখতে চাচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘এটি দুর্ঘটনা না, এটি হত্যা। এর সুষ্ঠু বিচার চাই। ওসি (পল্লবী থানার) সাহেবের সঙ্গে মামলার বিষয়ে কথা চলছে। আজ (রবিবার) রাতের মধ্যেই মামলা করা হবে।’

গতকাল রবিবার বিকেলে শিশুটির বাবা জসিমের (৩২) সঙ্গে কথা হলে তিনি ছেলে হারানোর কষ্ট সইতে পারছেন না বলে আহাজারি করতে থাকেন। একপর্যায়ে তিনি বলেন, প্রতিদিনের মতো গতকাল (গত শনিবার) বিকেমল ৫টার দিকে স্কুল থেকে বাসায় ফেরার পথে প্রজাপতি পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস সাব্বিরকে চাপা দেয়। এতটুকু বলেই তিনি কান্না করতে থাকেন। তিনি বলেন, সাব্বিরের মা ক্ষণে ক্ষণে জ্ঞান হারাচ্ছেন।

পল্লবী থানার এসআই শামীম হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, পরিবার মামলা করতে চাইলে মামলা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা