kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গোবিন্দগঞ্জে তৃতীয় লিঙ্গের সুমি হুমকিতে বাড়িছাড়া

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রামপুরা গ্রামের তৃতীয় লিঙ্গের সুমি খাতুন ওরফে খাজার ১৩ একর ৫ শতাংশ পৈতৃক জমি ও বসতবাড়ি সন্ত্রাসী কায়দায় দখল করে নেওয়া হয়েছে। বসতবাড়ি-জমি হারিয়ে এবং সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকির মুখে বাড়িঘর ছেড়ে এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন সুমি।

এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিকার চেয়ে লিখিত আবেদন করেও কোনো ফল হয়নি। গতকাল রবিবার গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে গোবিন্দগঞ্জের তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠী আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করা হয়।

সুমি খাতুন লিখিত বক্তব্যে জানান, তাঁর দাদা মানিক উল্যাহ ৩৫৪, ৩৬০ ও ৪৬৯ খতিয়ানের ২৩টি দাগে ১৩ একর ৫ শতাংশ জমির মালিক ছিলেন। তাঁর সন্তানরা নাবালক থাকায় এসব জমি চাষাবাদ করার জন্য বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি থানার চন্দনবাইশা গ্রামের দরিদ্র দুলা মিয়াকে বাড়িতে নিয়ে এসে আশ্রয় দেওয়া হয়। লোভী ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির দুলা মিয়া আশ্রয়দাতা মানিক উল্যাহকে ১৯৩৭ সালে গলা কেটে হত্যা করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা