kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সীমান্তে বিজিবির টহল জোরদার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আসামে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা প্রকাশ করার পর বাদ পড়া লোকজনের সম্ভাব্য অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কুড়িগ্রাম, মৌলভীবাজারসহ বিভিন্ন সীমান্তে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সীমান্তে বিজিবির সদস্যসংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি টহল জোরদার করা হয়েছে। বিস্তারিত জানিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিরা—

কুড়িগ্রাম : জেলা সদর, ভূরুঙ্গামারী ও নাগেশ্বরী সীমান্তের দায়িত্বে থাকা কুড়িগ্রাম বিজিবি ২২ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. জামাল উদ্দিন বলেন, ‘এনআরসি নিয়ে আমরা আগে থেকেই সতর্ক রয়েছি। সম্ভাব্য সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় সীমান্তে টহল জোরদার করা হয়েছে। এ ছাড়া বর্ডার আউট পোস্টের (বিওপি) দায়িত্বশীলদের সীমান্তবাসীর সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখে তথ্য চাওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’ তিনি জানান, কুড়িগ্রাম বিজিবি ২২ ব্যাটালিয়নের অধীন ভারতের আসাম সীমান্তবর্তী ৯টি বিওপি ক্যাম্পকে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

রৌমারীর দাঁতভাঙা গয়াটাপাড়া ক্যাম্পের দায়িত্বে থাকা বিজিবি ৩৫ ব্যাটালিয়নের হাবিলদার কমল কৃষ্ণ সরকার বলেন, ‘সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আমাদের টহল দলে সদস্যসংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

জামালপুর বিজিবি ৩৫ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আসাম পরিস্থিতিতে আমরা সীমান্তে বাড়তি সতর্কতায় রয়েছি।’

লালমনিরহাট বিজিবি ১৫ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল মো. আনোয়ার-উল আলম বলেন, ‘অবৈধ অনুপ্রবেশ, পুশইন কিংবা চোরাকারবারিদের তৎপরতা ঠেকাতে আমরা সতর্কাবস্থায় রয়েছি।’

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) : মৌলভীবাজারের বড়লেখা সীমান্তে নিয়মিত টহলের পাশাপাশি নজরদারি বাড়িয়েছে বিজিবি। বিজিবির বিয়ানীবাজার ৫২ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়জুর রহমান বলেন, ‘২০১৮ সালে ভারতে এনআরসির খসড়া তালিকা প্রকাশের পর থেকেই হেডকোয়ার্টার্সের নির্দেশে সতর্কাবস্থায় রয়েছে বিজিবি। গত শনিবার পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশের পর স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে বিজিবি।’

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) : হবিগঞ্জের মাধবপুর ও চুনারুঘাটের ১০০ কিলোমিটার সীমান্তে বিজিবি সদস্যদের টহল জোরদার করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে বিজিবি-৫৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল এম জাহেদুর রশীদ জানান, হবিগঞ্জ সীমান্ত দিয়ে যাতে কেউ অনুপ্রবেশ করতে না পারে সে জন্য সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বিজিবি। সীমান্তবর্তী গ্রামগুলোতে বসবাসকারীদেরও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা