kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মাগুরায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা

চার জেলায় গ্রেপ্তার ৪

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাগুরার শালিখা উপজেলায় প্রথম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (৬) ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে গত শনিবার রাতে সুজিত বিশ্বাস (২৪) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অন্যদিকে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় স্কুলছাত্রী স্মৃতি আক্তার রীমাকে (১৫) ধর্ষণের পর হত্যা মামলার প্রধান আসামিকে গতকাল রবিবার বিকেলে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া ফরিদপুরে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বরিশালে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তি পলাতক রয়েছে। বিস্তারিত নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

মাগুরা : ছাত্রীর বাবা জানান, সমেন্দ্র বিশ্বাসের ছেলে সুজিতের মুদি দোকানে বিকেলে বাড়ির মালামাল কিনতে যায় তাঁর মেয়ে। এ সময় খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে সুজিত মেয়েকে তার বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। কিশোরগঞ্জ: রীমা ধর্ষণের পর হত্যা মামলার প্রধান আসামি চরফরাদী গ্রামের খুরশিদ মিয়ার ছেলে জাহিদ মিয়াকে কিশোরগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হোসেনপুর উপজেলার জামাইল গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের মেয়ে ও নবম শ্রেণির ছাত্রী রীমা গত ১৬ জুলাই মায়ের সঙ্গে অসুস্থ নানিকে দেখতে উপজেলার গাংধোয়ারচর গ্রামে যায়। ১৮ জুলাই নানাবাড়ির পুকুরপারের একটি গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফরিদপুর : সালথায় ধর্ষণের পরে ২৪ বছরের এক তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হলে জোরপূর্বক মৃত সন্তান প্রসব করানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই তরুণী থানায় মামলা দায়েরের পর গতকাল রবিবার বিকেলে অভিযুক্ত শামসুল হক খান (৫৮) ও সহযোগী লাইলী বেগমকে (৪০) গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। জানা যায়, উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের চরবাংরাইল গ্রামের মৃত মালেক খানের ছেলে  শামসুল  আত্মীয়তার সুযোগ নিয়ে ওই তরুণীকে বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে। পাঁচ-ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর শুনে তিনি গর্ভপাত করানোর জন্য তরুণীকে একটি ইনজেকশন পুশ করে তাকে উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া গ্রামের মৃত বেদন মোল্লার মেয়ে লাইলী বেগমের বাড়িতে রেখে আসে। সন্ধ্যায় তরুণীটি যন্ত্রণায় চিৎকার করলে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়।

বরিশাল : উজিরপুর উপজেলায় এক গৃহবধূকে কয়েকবার ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে পশ্চিম জয়শ্রী গ্রামের মৃত আলমগীর সরদারের ছেলে মাইনুল ইসলামের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গত শনিবার রাতে ওই গৃহবধূ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা