kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শেয়ার দিয়ে ঋণ শোধ করছে বাংলালিংক

নতুন ৩৭১ কোটি শেয়ার ইস্যু করলে সর্বমোট শেয়ার দাঁড়াবে ৮৪৭ কোটি ৩১ লাখ, বাড়বে পরিশোধিত মূলধন

রফিকুল ইসলাম   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শেয়ার দিয়ে ঋণ শোধ করছে বাংলালিংক

মোবাইল ফোন অপারেটর কম্পানি বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশন লিমিটেড ঋণ পরিশোধে নতুন করে শেয়ার ইস্যু করছে। পরিশোধিত মূলধন বাড়িয়ে তিন হাজার ৭১২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা ঋণ শোধ করতে এমন উদ্যোগ নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বাংলালিংকের শেয়ারহোল্ডার কম্পানি টেলিকম ভেঞ্চার লিমিটেডের (টিভিএল) পাওনা এই ঋণ পরিশোধ করতে ৩৭১ কোটি ২৭ লাখ নতুন শেয়ার ইস্যু করা হচ্ছে।

নতুন করে শেয়ার ইস্যুর অনুমতি চেয়ে বাংলালিংক সম্প্রতি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে (বিটিআরসি) আবেদন করে। বিটিআরসি সার্বিক দিক বিচার-বিশ্লেষণ শেষে ঋণ পরিশোধে নতুন শেয়ার ইস্যুর অনুমতি দিয়েছে।

বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশনস লিমিটেড টেলিকম ভেঞ্চারস লিমিটেডের (টিভিএল) সম্পূর্ণ মালিকানাধীন একটি প্রতিষ্ঠান, যা গ্লোবাল টেলিকম লিমিটেডের শতভাগ মালিকানাধীন একটি সহায়ক প্রতিষ্ঠান। ২০০৫ সালে যাত্রা শুরুর পর বাংলাদেশে বাংলালিংকের সংযোগ ব্যবহারকারীর সংখ্যা তিন কোটি ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে। নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ ও সেবার মান বাড়াতে প্রতিষ্ঠানটি একের পর এক নতুন নতুন উদ্যোগ নিচ্ছে।

জানা যায়, শুরুতে ওরাসকম টেলিকম ভেঞ্চারস লিমিটেড বাংলালিংককে ঋণ দেয়। তবে নাম পরিবর্তন করার পর প্রতিষ্ঠানটিকে ঋণ দিচ্ছে টিভিএল। তারা বিদেশ থেকে ডলারের হিসাবে ঋণের অর্থ বাংলাদেশে পাঠায়। আর তা বাংলালিংকের হিসাবে জমা হয়। বর্তমানে টিভিএলের কাছে বাংলালিংকের ঋণের পরিমাণ তিন হাজার ৭১২ কোটি ৭৭ লাখ ৩০ হাজার ৪২০ টাকা।

সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলালিংকের কাছে টিভিএলের পাওনার পরিমাণ ৪৩ কোটি ২০ লাখ ৪৪ হাজার ৮৬৯ ডলার। চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত সুদসহ সেই ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৩ কোটি ৬৭ লাখ ৯৬ হাজার ৮২৮ ডলার। প্রতি ডলার ৮৫ টাকা হিসাবে তা দাঁড়ায় তিন হাজার ৭১২ কোটি ৭৭ লাখ ৩০ হাজার ৪২০ টাকা।

বাংলালিংক বলছে, ঋণ পরিশোধ করতে নতুন করে শেয়ার ইস্যু করা প্রয়োজন। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মোতাবেক মূলধন ও ঋণের অনুপাত ঠিক রাখতে বর্তমান শেয়ারহোল্ডার প্রতিষ্ঠান টেলিকম ভেঞ্চার লিমিটেডের কাছে নতুন শেয়ার ইস্যু করতে হবে। আর তাতে ঋণ পরিশোধ হয়ে যাবে।

জানা যায়, কম্পানির পরিশোধিত মূলধন বৃদ্ধি করতে আবেদন জানিয়েছে বাংলালিংক। বাংলাদেশি বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) বরাবর এই আবেদন জানানো হয়েছে। বর্তমানে কম্পানিটির ৪৭৬ কোটি তিন লাখ ৭৭ হাজার ৯৯৬টি শেয়ার ইস্যু করা আছে। টিভিএল প্রতিষ্ঠানটির ৯৯.৯৯ শতাংশের মালিক। অর্থাৎ ৪৭৬ কোটি তিন লাখ ৭৭ হাজার ৩৯৬ শেয়ারের মালিক টিভিএল। মালিকানায় থাকা আরো ছয় ব্যক্তি ৬০০ শেয়ারের মালিক।

জানা যায়, বিদ্যমান ঋণ পরিশোধ করতে ৩৭১ কোটি ২৭ লাখ ৭৩ হাজার ৪২টি শেয়ার ইস্যু করবে বাংলালিংক। এতে পরিশোধিত মূলধন বাড়বে। পাশাপাশি ঋণের টাকাও পরিশোধ হবে। সব মিলিয়ে বাংলালিংকের ইস্যু করা শেয়ারের সংখ্যা দাঁড়াবে ৮৪৭ কোটি ৩১ লাখ ৫১ হাজার ৩৮। পুরো শেয়ারই ইস্যু করা হবে টিভিএলের পক্ষে, অন্য শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ারের সংখ্যা অপরিবর্তিত থাকলেও।

এ বিষয়ে বাংলালিংকের চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের পেইডআপ ক্যাপিটাল বৃদ্ধিসংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্যাদি ইতিমধ্যে বিটিআরসিকে দেওয়া হয়েছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা