kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সিলেটে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ৪১ এনজিওকে প্রত্যাহার করা হয়েছে

সিলেট অফিস   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করতে গিয়ে নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়ায় ৪১টি এনজিও সংস্থাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। আরো কিছু এনজিও সংস্থার কর্মকাণ্ড পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

গতকাল শনিবার সিলেটের দক্ষিণ সুরমার পারাইরচকে সিটি করপোরেশনের মেডিক্যাল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়ার পর কক্সবাজারে ১৩৯টি দেশি-বিদেশি এনজিও সংস্থা তাদের সহায়তায় কাজ শুরু করেছিল। বিদেশি এনজিও সংস্থাগুলো বাইরে থেকে টাকা এনে রোহিঙ্গাদের সাহায্য করে। এতে আমরা লাভবান হই। কিন্তু যখন টাকাগুলো সঠিকভাবে খরচ না হয়, তখনই সমস্যার সৃষ্টি হয়। নানা অপকর্মে লিপ্ত থাকায় তালিকা করে ৪১টি এনজিওকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সব ধরনের কার্যক্রম থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।’

এখনো বিভিন্ন এনজিও একই কাজ করছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এদের কার্যক্রমে নজরদারি হচ্ছে। তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শর্তের বাইরে গিয়ে কাজ করা কয়েকটি দেশি ও বিদেশি সংস্থা এরই মধ্যে তদবিরও শুরু করেছে। তারা নিজেদের খারাপ কাজগুলোর কথা স্বীকার করে ভবিষ্যতে আর না করার অঙ্গীকার করে ক্ষমা চাচ্ছে।’

সিসিকের জনসংযোগ শাখা জানায়, সিলেট সিটি করপোরেশনের অর্থায়নে স্থাপিত মেডিক্যাল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমটি পরিচালনা করছে ‘প্রিজম বাংলাদেশ’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। নগরবাসীর স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনা করে নগরের সব ক্লিনিক-হাসপাতালের বর্জ্য সংগ্রহ করে এখানে বিজ্ঞানসম্মতভাবে পরিশোধন করা হবে।

অনুষ্ঠানে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘আমি প্রথমবার যখন নির্বাচিত হই, তখন দেখলাম সিলেট মহানগরের সলিড ওয়েস্ট এবং মেডিক্যাল ওয়েস্ট একই জায়গায় ফেলা হচ্ছে। তখন আমরা সব মেডিক্যাল বর্জ্য একত্রিত করে বিজ্ঞানসম্মতভাবে ডাম্পিং ও জীবাণুমুক্তকরণের উদ্যোগ নিই। আজ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আমার নির্বাচনী ইশতেহারের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়িত হলো।’

এ সময় সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও যুগ্ম সচিব বিধায়ক রায় চৌধুরী, সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, সিটি কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, আজম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা