kalerkantho

রূপা হত্যার দুই বছর

দ্রুত বিচার কার্যকর করতে পরিবারের মানববন্ধন

তাড়াশ-রায়গঞ্জ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি    

২৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দ্রুত বিচার কার্যকর করতে পরিবারের মানববন্ধন

রূপা হত্যার বিচারের রায় দ্রুত কার্যকরের দাবিতে গতকাল সিরাজগঞ্জের তাড়াশে মানববন্ধন করে পরিবারের সদস্যরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে চাঞ্চল্যকর জাকিয়া সুলতানা রূপা গণধর্ষণ ও হত্যা মামলার দ্রুত বিচারের দাবিতে তাঁর পরিবারের সদস্যরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন। গতকাল রবিবার দুপুরে রূপার দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে তাড়াশ প্রেস ক্লাব চত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে কাঁদতে কাঁদতে মেয়ে হত্যার দ্রুত বিচার দাবি করেন রূপার মা হাসনাহেনা বেগম (৫৮)। তিনি বলেন, ‘গত দুই বছরেও মেয়ে হত্যার বিচার না পেয়ে আমি হতাশ। মেয়ে হারানোর কষ্ট বুকে চেপে দিন পার করতে হচ্ছে। তার ওপর রূপা ছিল আমাদের পরিবারের উপার্জনক্ষম সদস্য। ফলে তার মৃত্যুর পর থেকে পরিবারকে অশেষ কষ্ট পোহাতে হচ্ছে। তার হত্যার বিচার হলে দেশে দৃষ্টান্ত স্থাপিত হবে।’ এরপর রূপার ভাই হাফিজুর রহমান, উজ্জ্বল প্রামানিক ও ভাবি টুম্পা খাতুনও হত্যার বিচার চেয়ে বক্তব্য দেন। এ সময় তাঁদেরও অঝোরে কাঁদতে দেখা যায়।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা শেষে বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে রূপাকে চলন্ত বাসে গণধর্ষণ করে নির্মমভাবে হত্যা করেন পরিবহন শ্রমিকরা। পরে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার পঁচিশ মাইল এলাকায় বনের মধ্যে তাঁর মরদেহ ফেলে রেখে যান তাঁরা। এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে মধুপুর থানা পুলিশ ওই রাতেই অজ্ঞাত হিসেবে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে। পরদিন ময়নাতদন্ত শেষে রূপার মরদেহ বেওয়ারিশ হিসেবে টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মন্তব্য