kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১       

আশুলিয়ায় মারমা নারীকে সংঘবদ্ধধর্ষণের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকার আশুলিয়ায় স্বামীকে আটকে রেখে মারমা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ অনুযায়ী, চাঁদা না পেয়ে তিন তরুণ ওই নারীকে ধর্ষণ করে। এ অভিযোগে রনি (২১) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভুক্তভোগী নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)।

অভিযোগ অনুযায়ী, ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে গত মঙ্গলবার আশুলিয়ার ডেণ্ডাবর এলাকার নতুনপাড়া মহল্লায়। আর মামলা হয় গত শনিবার রাতে। মামলায় তিনজনকে আসামি করা হয়েছে। তারা হলো পাবনার আটঘরিয়া থানার পাইকপাড়া গ্রামের রনি, আশুলিয়ার ডেণ্ডাবর এলাকার জয় (২২) এবং ফরিদপুরের শামীম (২৬)। রনি ও শামীম ডেণ্ডাবর এলাকায় ভাড়া থাকে।

মামলার এজাহার অনুযায়ী, মদ তৈরির অভিযোগ তুলে গত মঙ্গলবার ওই দম্পতির ঘরে প্রবেশ করে অভিযুক্ত তিনজন। তারা ওই দম্পতির কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না পেয়ে অভিযুক্তরা বাসায় ভাঙচুর চালায়। মারধর করার পর ভুক্তভোগীর স্বামীকে আটকে রাখে একটি কক্ষে। এরপর ধর্ষণ করে ওই নারীকে। যাওয়ার সময় ওই নারীর গলার গয়না ও ১০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। ঘটনা জানাজানি হলে হত্যার হুমকিও দেওয়া হয় ওই দম্পতিকে।

আশুলিয়া থানার ওসি রিজাউল হক দিপু জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। এরই মধ্যে রনিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অন্যদের শিগগিরই গ্রেপ্তার করা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা