kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

রোহিঙ্গা নিপীড়নের তদন্ত

মিয়ানমারের কমিশন অনেক প্রশ্নেই নিরুত্তর

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নসহ গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘন খতিয়ে দেখতে মিয়ানমারের গড়া কথিত স্বাধীন তদন্ত কমিশনের প্রতিনিধিরা নিজেরাই জানেন না তাঁদের তদন্তের ফল কী কাজে আসবে। চার দিনের বাংলাদেশ সফরের দ্বিতীয় দিনে গতকাল রবিবার ওই দলটি ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করে। বৈঠক শেষে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতা জাপানের সাবেক রাষ্ট্রদূত কেনজো ওশিমা সাংবাদিকদের বলেন, ভালো আলোচনা হয়েছে।

তবে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, তদন্তের ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর দেয়নি প্রতিনিধিদলটি। বিশেষ করে তাদের তদন্ত শেষে তারা কোথায়, কার কাছে প্রতিবেদন জমা দেবে এবং আর ওই প্রতিবেদন থেকে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গারা কিভাবে উপকৃত হবে সেসব প্রশ্নে নিরুত্তর ছিলেন মিয়ানমারের তদন্ত কমিশন দলের প্রতিনিধিরা।

প্রতিনিধিদলটি আজ কক্সবাজারে যাচ্ছে। কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ ও যাচাইয়ের জন্য আগামী দিনে আলাদা দল আসবে। সফররত দলটি পরবর্তী দলগুলোর কাজের প্রস্তুতি পর্যালোচনা এবং বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় অনুমতি নেওয়ার আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করছে। তবে পরবর্তী দলগুলোর সফরের তারিখ এখনো ঠিক হয়নি।

জাতিসংঘের তদন্তদল রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার বাহিনীর নিপীড়নে ‘জেনোসাইডের’ আলামত আছে বলে দাবি করেছে। গত বছর তারা মিয়ানমারের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তাদের যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধসহ গুরুতর অপরাধের বিচারের সুপারিশ করে। আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালত (আইসিসি) বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ওপর বিচারিক এখতিয়ার আছে বলে রায় দেন। অভিযোগ আছে, এমন প্রেক্ষাপটে বিশ্ব সম্প্রদায়ের দৃষ্টি অন্যদিকে নিতে লোক দেখানো তদন্ত কমিশন গঠন করে মিয়ানমার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা