kalerkantho

নির্যাতন ও নিপীড়ন

পরিস্থিতির ভয়াবহতা স্বীকার করতে সরকারকে সাত সংগঠনের আহ্বান

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নির্যাতন ও নিপীড়ন পরিস্থিতির ভয়াবহতা স্বীকার করতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশি-বিদেশি সাতটি মানবাধিকার সংগঠন। একই সঙ্গে তারা বাংলাদেশকে জাতিসংঘের নির্যাতনবিরোধী কমিটির সুপারিশগুলো বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছে। এশিয়ান লিগ্যাল রিসোর্স সেন্টার (এএলআরসি), এশিয়ান ফেডারেশন অ্যাগেইনস্ট ইনভলান্টারি ডিজঅ্যাপিয়ারেন্স (এএফএডি), এশিয়ান ফোরাম ফর হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ফোরাম-এশিয়া), এফআইডিএইচ-ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন ফর হিউম্যান রাইটস, অধিকার, রবার্ট এফ কেনেডি হিউম্যান রাইটস ও ওয়ার্ল্ড অ্যাগেইনস্ট টর্চার নামে ওই সাতটি সংগঠন গত বুধবার যৌথ বিবৃতিতে বাংলাদেশের প্রতি এসব আহ্বান জানায়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত ৯ আগস্ট নির্যাতনবিরোধী জাতিসংঘ কমিটি প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে নির্যাতন ও অন্যান্য নিষ্ঠুর শাস্তিবিরোধী সনদ বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা করে। কমিটি তার ১৬ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনে ‘প্রায় পুরোপুরি দায়মুক্তি’ নিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর যত্রতত্র ও ধারাবাহিক নির্যাতন ও নিপীড়নের ব্যাপারে গভীর উদ্বেগ জানায়।

সাত সংগঠন যৌথ বিবৃতিতে বলেছে, ২০১৩ সালে নির্যাতন ও নিরাপত্তা হেফাজতে মৃত্যু (প্রতিরোধ) আইন প্রণয়নের পর থেকে ওই আইনে মাত্র ১৭টি মামলা করা হয়েছে বলে সরকার তথ্য দিয়েছে। এখন পর্যন্ত ওই মামলাগুলোর একটিরও তদন্ত শেষ হয়নি। বরং মামলা দায়ের করা পরিবারগুলো হয়রানি, হুমকি ও পাল্টা ব্যবস্থার শিকার হচ্ছে বলে জাতিসংঘ কমিটি তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে।

গুম, হয়রানি, গোপনে আটক রাখার মতো গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনে জাতিসংঘ কমিটির উদ্বেগের কথাও ওই সাত সংগঠন উল্লেখ করেছে। তারা একই সঙ্গে এসব বিষয়ে অগ্রগতির তথ্য আগামী এক বছরের মধ্যে জাতিসংঘ কমিটির কাছে দাখিল করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা