kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

গাজীপুরে যাত্রীদের কাছ থেকে বেশি ভাড়া আদায়

লোকাল বাস হয়ে গেছে দূরপাল্লার

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রমিক অধ্যুষিত গাজীপুরে পরিবহনগুলোতে ঈদ যাত্রায় যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। বাস, লেগুনা, সিএনজি, অটোরিকশাসহ সব ধরনের যানবাহনে দুই থেকে তিন গুণ বেশি ভাড়া নিচ্ছে বলে জানিয়েছে যাত্রীরা। কোথাও কোথাও ভাড়া নিয়ে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছে। পুলিশের সামনে এসব ঘটলেও প্রতিকার নেই। 

শনিবার গাজীপুরের সবচেয়ে ব্যস্ততম চান্দনা চৌরাস্তা, কোনাবাড়ী, চন্দ্রা ও টঙ্গীর কয়েকটি বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা গেছে দূরপাল্লার বাস সংকটের কারণে অভ্যন্তরীণ রুটের অনেক বাস দূরপাল্লার যাত্রী নিচ্ছে। শ্রমিকরা এসব বাসের পাশাপাশি ট্রাক, পিকআপে উঠতে বাধ্য হচ্ছে। বলাকা, প্রভাতি-বনশ্রী, ভাওয়াল, ঢাকা পরিবহন, বন্যাসহ স্বল্প দূরত্বের সব রুটের বাসগুলো যাত্রীদের কাছ থেকে দুই-তিন গুণ ভাড়া আদায় করছে। পুলিশের সামনেই এসব বেআইনি কাজ চলছে।

প্রভাতি-বনশ্রী পরিবহনের যাত্রী শ্রীপুরের মাওনার মো. বেলাল হোসেন বলেন, চান্দনা চৌরাস্তা থেকে শ্রীপুরের মাওনার ভাড়া ৪০ টাকা। কিন্তু শনিবার তাঁর কাছ থেকে নিয়েছে ১০০ টাকা। বন্যা পরিবহনের যাত্রী কাপাসিয়ার টোকের বাসিন্দা জিয়ারত হোসেন বলেন, ‘বাস শ্রমিকরা জুলুম করছে। কিশোরগঞ্জের কটিয়াদির ভাড়া ১০০ টাকা হলেও চান্দনা চৌরাস্তা থেকে বাসে ওঠার পর আমার কাছ থেকে চাপ প্রয়োগ করে নেওয়া হয়েছে ৩০০ টাকা।’ ভাড়া নিয়ে বাসের ভেতর যাত্রীদের সঙ্গে শ্রমিকদের মারামারির ঘটনাও ঘটেছে বলেও জানান তিনি।

বন্যা পরিবহনের সুপারভাইজার রফিক মিয়া জানান, যাওয়ার সময় যাত্রী থাকলেও আসার সময় খালি আসতে হচ্ছে। তাই ঈদ বোনাস হিসেবে কিছু বেশি নেওয়া হচ্ছে। কারো কাছ থেকে জোর করে নেওয়া হচ্ছে না।

শুধু বাস নয়, অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে সিএনজি, লেগুনাগুলোও। চান্দনা চৌরাস্তা থেকে কোনাবাড়ীর ভাড়া লেগুনায় ১৫ টাকা হলেও নেওয়া হচ্ছে ৩০ টাকা। তবে লেগুনাচালক ইলিয়াস হোসেন বলেন, ঈদে সবাই বোনাস পায়। আমাদের কোনো বোনাস নেই। তাই ঈদ উপলক্ষে সামান্য বেশি নিচ্ছি। জোর করে নয়, সবাই খুশি হয়েই দিচ্ছে।

মন্তব্য