kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

বেতন ও বোনাস না পেয়ে ক্ষোভ পানছড়ির শিক্ষক-কর্মচারীদের

পানছড়ি প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি   

১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



পবিত্র ঈদুল আজহার বেতন-ভাতা ও বোনাসের টাকা না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মচারীরা। তাঁদের অভিযোগ, জেলার অন্যান্য উপজেলায় বেতন ও বোনাস যথাসময়ে দেওয়া হলেও সোনালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষের আন্তরিকতার অভাবে তাঁরা বেতন-ভাতা ও বোনাস পাননি। ফলে পরিবার-পরিজন নিয়ে এবারের ঈদ তাঁদের নিরানন্দেই কাটাতে হবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক-কর্মচারী জানান, বেতন-ভাতার বিষয়ে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের পানছড়ি শাখার সঙ্গে তাঁরা যোগাযোগ করেছেন। ম্যানেজার তাঁদের সরাসরি বলে দিয়েছেন যে এমপিও অর্ডারশিট রাঙামাটি থেকে হাতে না পৌঁছানো পর্যন্ত দেওয়া সম্ভব হবে না। শিক্ষকরা আরো জানান, সরকারি প্রজ্ঞাপনে ৮ তারিখের মধ্যে প্রতিটি ব্যাংকে বেতন ও বোনাস যথাসময়ে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

এ বিষয়ে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের পানছড়ি শাখার ম্যানেজার জ্ঞানময় চাকমা বলেন, ‘আমি বেতন-ভাতাদি নেওয়ার জন্য বলেছি কিন্তু কেউ আসেনি।’

পানছড়ি সোনালী ব্যাংক অনলাইনের আওতাভুক্ত হওয়া সত্ত্ব্বেও উপজেলার শিক্ষক-কর্মচারীরা কেন বঞ্চিত হয়েছে—বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা।

মন্তব্য