kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

মিরপুরে কিশোর গ্যাং গ্রুপের ২৪ সদস্য গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর মিরপুর শাহ আলী থানার দারুসসালাম রোড ও মিরপুর ১ নম্বর সেকশন এলাকায় আলাদা অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং গ্রুপের ২৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। গত শুক্রবার মধ্যরাতে এক ছিনতাইকারীকে হাতেনাতে ধরার পর গতকাল শনিবার দুপুর পর্যন্ত সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ১৮ বছরের কম বয়সী ১৯ জনকে ছয় মাসের জন্য গাজীপুরের কিশোর সংশোধনালয়ে পাঠিয়েছেন র‌্যাব-৪-এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। ১৮ বছরের বেশি বয়সের অন্য পাঁচজনকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন একই আদালত।

র‌্যাব-৪-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল জানান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিজাম উদ্দিন আহমেদের সহযোগিতায় সহকারী পুলিশ সুপার রিফাত বাশার তালুকদারের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে দারুসসালাম সড়কে এক ছিনতাইকারী হাতেনাতে ধরা পড়ে। সে একজনের টাকা ছিনতাই করে পালাচ্ছিল। ওই ঘটনার পর দুই ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে গ্রেপ্তার করা হয় আরো সাতজনকে।

গ্রেপ্তারকৃতরা জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাবকে জানায়, সংঘবদ্ধ কিশোর গ্রুপ সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৩টা পর্যন্ত ওই এলাকায় ছিনতাই করে। এদের মধ্যে একটি গ্রুপের নাম ‘ব্লেড রানার’। এ গ্রুপের সদস্যরা মানুষের পকেট কাটার জন্য পকেটে সব সময় ব্লেড রাখে। যদি তাদের জনগণ বা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ধরে ফেলে, তখন এরা নিজেদের পকেটে রাখা ব্লেড দিয়ে নিজেদের হাত, পা, মুখ কেটে ফেলে। আরেকটি গ্রুপের নাম ‘নিনজা’। এদের চলাফেরা ও গতি খুব দ্রুত। এরা কারো কাছ থেকে ছিনতাই করে দ্রুত সেই সামগ্রীটি পেছনে থাকা তার দলের অন্য সদস্যের কাছে দিয়ে দেয়। সে জন্য ছিনতাইকারীকে সহজে শনাক্ত করা যায় না। ফুটপাতে কেনাকাটা করতে আসা শ্রমজীবী মানুষ ও গার্মেন্টকর্মীরা সাধারণত ভুক্তভোগী হয়। এ ছাড়া যারা নাইট শিফটে কাজে বের হয়, তাদের টার্গেট করে এরা। ছিনতাইকে কেন্দ্র করে নিজেদের মধ্যে প্রায়ই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে তারা।

মন্তব্য