kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

কিশোরীকে গণধর্ষণ বাবাকে হত্যার হুমকি

আরো একজন ধর্ষিত; স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



মাদারীপুরে বাক্প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কিশোরীর পরিবার বলছে, গত বৃহস্পতিবারের এ ঘটনা নিয়ে থানায় মামলা করায় কিশোরীর বাবাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে আসামিরা।

এ ছাড়া নরসিংদীর বেলাবতে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী। গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে একজন গ্রেপ্তার হয়েছে। হবিগঞ্জের লাখাইয়ে ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় দুই সাক্ষীকে কোপানোর অভিযোগ উঠেছে আসামির বিরুদ্ধে। একই জেলার আজমিরীগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে এক কিশোরকে (১৪) আটক করেছে পুলিশ। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

মাদারীপুর : গণধর্ষণ মামলার আসামিরা হলো—মাদারীপুর সদর উপজেলার ঘটমাঝি ইউনিয়নের চোকদার ব্রিজ এলাকার করিম চোকদারের ছেলে তন্ময় চোকদার (২২), টুলু চোকদারের ছেলে জিশান চোকদার (১৮) এবং সানু মোল্লার ছেলে হাসান মোল্লা (২১)। পুলিশ, হাসপাতাল ও পারিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই কিশোরী (১৬) গোসল করতে বাড়ি থেকে নিম্নকুমার নদে যাচ্ছিল। পথে তন্ময়, জিশান ও হাসান তাকে জোর করে তুলে পাশের একটি ঝোপের মধ্যে নিয়ে যায়। সেখানে তারা তাকে ধর্ষণ করে। এদিকে মেয়ের ফিরতে দেরি দেখে মা নদের দিকে যাওয়ার সময় ঘটনাটি দেখে ফেলেন। অভিযুক্তরা তখন পালিয়ে যায়। রাতে এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে সালিস বসে। সালিসদাররা ঘটনাটি মীমাংসাযোগ্য নয় বলে চলে যান। গতকাল সকালে তিন অভিযুক্ত মেয়েটির বাবাকে হত্যার হুমকি দেয়। মেয়েটির বাবা দুপুরে তিনজনকে আসামি করে মাদারীপুর সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন। এর পরও বাবাকে হত্যার হুমকি দেয় আসামিরা।

নির্যাতিতার বাবা বলেন, “ওরা (আসামি) বলছে, ‘মামলা করে কী করবি। পুলিশকে টাকা দিয়ে মামলা শেষ করে তোকে দেখে নিব, কিভাবে এলাকায় থাকিস।’ আমি এখন বাড়ি থেকে বের হতে পারছি না।”

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) : কোটালীপাড়া উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের হাতে গতকাল গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম ইজাবুল মোল্লা (৪৫)। সে রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের জটিয়াবাড়ী গ্রামের ইউসুফ মোল্লার ছেলে।

জানা গেছে, গত ২ আগস্ট বিকেলে ইজাবুল মোল্লা জটিয়ারবাড়ী গ্রামের এক স্কুলছাত্রীকে স্থানীয় ফরিদ মিয়ার মাছের ঘের পারে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ইজাবুল ছাত্রীটির পরিবারকে ম্যানেজের চেষ্টা করে আসছিল। তবে গতকাল ছাত্রীটির মা কোটালীপাড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

নরসিংদী : বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বেলাব উপজেলার সররবাদ পশ্চিমপাড়া গ্রামের সামাদ লেংটার মাজারের পাশের একটি বাড়িতে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এক নারীকে (২৫) ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। ধর্ষণে অভিযুক্ত মকবুল (৩২) বাড়িটির মালিক মৃত মহব্বত আলীর ছেলে। এ ঘটনায় গতকাল বেলাব থানায় মামলা করেন নির্যাতিত নারী।

ধর্ষণ মামলার দুই সাক্ষীকে কোপাল আসামি

হবিগঞ্জের লাখাইয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে ধর্ষণ মামলা তুলে না নেওয়ায় দুই সাক্ষীকে কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত করার অভিযোগ উঠেছে আসামি জাহিদ মিয়া ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। রাতেই আহতদের হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন উপজেলার তেঘরিয়া গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে আরমান মিয়া (২২) ও একই গ্রামের সাধু মিয়ার ছেলে জালাল মিয়া (২৫)। জাহিদ মিয়া তেঘরিয়া গ্রামের খোয়াজ আলীর ছেলে।

জানা যায়, বেশ কিছুদিন আগে একটি শিশুকে ধর্ষণ করে জাহিদ মিয়া। পরে এ ঘটনায় শিশুটির বাবা লাখাই থানায় মামলা করেন। মামলায় সাক্ষী হন আরমান মিয়া ও জালাল মিয়া। মামলার পর থেকেই জাহিদ মামলা তুলে নিতে বাদী ও সাক্ষীদের বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছিল।

ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে কিশোর আটক

আজমিরীগঞ্জ উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নে এক কিশোরের (১৪) বিরুদ্ধে পাঁচ বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত কিশোরকে বৃহস্পতিবার রাতে আটক করেছে পুলিশ। তার বাড়ি একই ইউনিয়নের মধ্যপাড়া গ্রামে। জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই কিশোর শিশুটিকে খেলারছলে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। শিশুটির চিৎকারে লোকজন এগিয়ে গেলে পালিয়ে যায় কিশোর। পরে ভিকটিমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয় স্বজনরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা