kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১       

কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি দুধ ‘ডেইরি ফ্রেশ’

কম্পানির চেয়ারম্যান-এমডি পলাতক, ১০ জনকে কারাদণ্ড

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় একটি দুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে কোনো গরুর খামার না থাকলেও তারা দুধ বিক্রি করত। বাজারজাত করা হতো ‘ডেইরি ফ্রেশ’ নামে। সেই দুধ তৈরি করা হতো কেমিক্যাল দিয়ে। প্রায় ৯ বছর ধরে এভাবে দুধ তৈরি করে বিক্রি করা হচ্ছিল। গত বুধবার কারখানাটি সিলগালা করে দিয়েছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে ওই প্রতিষ্ঠানের মালিককে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা, ১০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান আক্কাস আলী ও এমডি আজগর আহমেদ পালিয়েছেন। 

র‌্যাব বলছে, স্কিম পাউডার, লবণ, সোডিয়াম, পানি ও বিভিন্ন রাসায়নিক দ্রব্যের সংমিশ্রণে নকল তরল দুধ ও দই উৎপাদন করে ‘ডেইরি ফ্রেশ’ ব্র্যান্ডে বাজারজাত করা হতো। পুরিন্দা বাজারের ‘বারো আউলিয়া ডেইরী মিল্ক অ্যান্ড ফুড লিমিটেড’ নামের প্রতিষ্ঠানে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়। সহযোগিতায় ছিলেন র‌্যাব-১১-এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দিন চৌধুরী। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এই বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা।

র‌্যাব-১১-এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দিন চৌধুরী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ‘বারো আউলিয়া ডেইরী মিল্ক অ্যান্ড ফুড লিমিটেড’ নামের দুধ উৎপাদন প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। ওই সময় স্কিম পাউডার, লবণ, সোডিয়াম, পানি ও বিভিন্ন রাসায়নিক দ্রব্যের সংমিশ্রণে নকল তরল দুধ এবং তরল দুধের সঙ্গে বিভিন্ন রাসায়নিক দ্রব্য মিশিয়ে দই উৎপাদন করা হচ্ছিল। এ সময় আটক করা হয় প্রতিষ্ঠানের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ, জিএম আমিনুল ইসলাম, ডিজিএম আব্দুল আজিজ, শ্রমিক সফর আলী, নয়ন, আরিফুল ইসলাম, আবুল কালাম, হায়দার আলী, আতিক মিয়া, রিফাদ আহমেদসহ ১২ জনকে। পরে তাঁদের মধ্যে আটজনকে দুই বছর, একজনকে এক বছর ও তিনজনকে ছয় মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। প্রতিষ্ঠানটিকে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা ও সিলগালা করার আদেশ দেন ম্যাজিস্ট্রেট।

জসিম উদ্দিন বলেন, এই ‘বারো আউলিয়া ডেইরী মিল্ক অ্যান্ড ফুড লিমিটেড’ প্রায় ৯ বছর ধরে ওই এসএমডি পাউডার ব্যবহার করে দুধ তৈরি করে বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করে আসছিল। ওই পাউডারের সঙ্গে পানি মিশিয়ে দুধ তৈরি করা হতো। এখানে প্রকৃত কোনো দুধ উৎপাদন করা হতো না।

উল্লেখ্য, ১৪টি ব্র্যান্ডের দুধের বিষয়ে তিনটি সংস্থার প্রতিবেদন বিবেচনায় নিয়ে হাইকোর্ট গত ২৮ জুলাই স্বতঃপ্রণোদিত রুলসহ আদেশ দেন ওই ১৪টি ব্র্যান্ডের দুধের বিপণন পাঁচ সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখতে। ওই সব ব্র্যান্ডের একটি হলো বারো আউলিয়া ডেইরী মিল্ক অ্যান্ড ফুড লিমিটেডের ‘ডেইরি ফ্রেশ’।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা