kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

শেষ কর্মদিবসে ব্যাংকে ভিড়

রাজধানীর যেসব এলাকায় আজ ও কাল ব্যাংক খোলা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদের আগে শেষ ব্যাংকিং কর্মদিবস ছিল গতকাল বৃহস্পতিবার। তাই গতকাল বিভিন্ন ব্যাংকের শাখাগুলোতে কিছুটা ভিড় ছিল। যদিও কোরবানির পশু ক্রয়-বিক্রয়সংক্রান্ত লেনদেন এবং পোশাক শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধের সুবিধার্থে আজ ও কাল রাজধানীর অনেক এলাকায় ব্যাংকের শাখা খোলা থাকছে। বিশেষ করে উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অনুমোদিত ২৪টি পশুর হাটের আশপাশের এলাকায় অবস্থিত ব্যাংকের শাখা খোলা রাখার কথা বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ ছাড়া ঢাকা, আশুলিয়া, টঙ্গী, গাজীপুর, সাভার, ভালুকা, নারায়ণগঞ্জ এবং চট্টগ্রামে অবস্থিত পোশাকশিল্প এলাকায় ব্যাংকের শাখাও খোলা থাকছে। এর ফলে ওই সব এলাকায়ও আজ ও কাল ব্যাংকের শাখা খোলা রাখা হচ্ছে। এ ছাড়া ঈদের সময় নিরবচ্ছিন্ন লেনদেনের সুবিধার্থে ব্যাংকের এটিএম বুথেও পর্যাপ্ত টাকা রাখার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। 

আগামী ১২ আগস্ট সোমবার ঈদ উদ্যাপিত হবে। ঈদ উপলক্ষে রবি, সোম এবং মঙ্গলবার সরকারি ছুটি থাকবে। তার আগে দুই দিন শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের মহাব্যবস্থাপক এ কে এম মহিউদ্দিন আজাদ কালের কণ্ঠকে বলেন, বিশেষ ব্যবস্থায় আজ ও কাল সাপ্তাহিক ছুটির দুই দিন নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় ব্যাংকের শাখা খোলা থাকবে। কোরবানির পশু ব্যবসায়ী ও সাধারণ ক্রেতাদের লেনদেনের সুবিধার্থে রাজধানীর পশুর হাটের আশপাশের ব্যাংকের শাখা রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এসব শাখায় ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষ, যারা ব্যাংকের গ্রাহক, তারাও লেনদেন করতে পারবে।

রাজধানীর পশুর হাটের আশপাশে অবস্থিত ব্যাংকের শাখা ঈদের আগে তিন দিন খোলা রাখা ও সান্ধ্যকালীন ব্যাংকিং চালু রাখতে বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে একটি সার্কুলার জারি করা হয়। এতে বলা হয়, ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে ও ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত কোরবানির পশুর হাটগুলোতে অনেক ব্যবসায়ীর সমাগম ঘটে এবং বিপুল পরিমাণ নগদ অর্থের লেনদেন হয়ে থাকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা