kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

রাজধানীতে ১৫ দিনে শতাধিক ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার

নানা ফন্দিফিকিরে সক্রিয় ছিনতাইকারীচক্র

ওমর ফারুক   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



গোলাম মোস্তফা ৬২ বছরের বৃদ্ধ। তিনি কখনো লুঙ্গি কখনো পায়জামা-পাঞ্জাবি পরে একতারা নিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়ান। একতারা বাজিয়ে গান শোনান লোকজনকে। কিন্তু এর আড়ালে তাঁর আরেকটি পরিচয় হলো তিনি ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। লুঙ্গি ও গামছায় রাখেন চেতনানাশক ওষুধ। কারো কাছে টাকা আছে বুঝতে পারলে তিনি মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে আসেন চক্রের সদস্যদের। ছদ্মবেশী ছিনতাইকারী গোলাম মোস্তফাকে দুই সহযোগীসহ গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করেছেন র‌্যাব-৩ এর সদস্যরা। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানিয়েছে, ঈদ সামনে রেখে বিশেষ টার্গেট নিয়ে ছিনতাইয়ের জন্য মাঠে নেমেছিল তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তাদের মতো আরো অনেক ছিনতাইকারীই ঈদ সামনে রেখে মাঠে নেমেছে। তবে এরই মধ্যে গত ১৫ দিনে পুলিশ, ডিবি ও র‌্যাব সদস্যরা শতাধিক ডাকাত, ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে।

র‌্যাবের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে কারা রাজধানীতে ছিনতাইয়ের জন্য নামছে। তথ্য পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। এক প্রশ্নের জবাবে এই কর্মকর্তা বলেন, ছিনতাইকারীরা জেলে যাওয়ার পর জামিনে বেরিয়ে এসে আবারও ছিনতাই করে এমন তথ্য তাদের কাছে আছে। বাদীর মামলা করতে অনাগ্রহ, সাক্ষীর সাক্ষ্য দিতে অনীহা ইত্যাদি কারণে ছিনতাইকারীদের কারাগারে রাখা যায় না। তিনি বলেন, কোরবানি ঈদ সামনে রেখে ছিনতাই রোধে শতাধিক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করে জেলে ঢোকানো হয়েছে। অন্তত ঈদের আগে তারা আইনের ফাঁকফোকরে জামিনে জেল থেকে মুক্তি নিয়ে আসতে পারার কথা নয়। ফলে ছিনতাইকারীদের উৎপাত কম থাকবে। তিনি আরো জানান, এসব ছিনতাইকারীর বেশির ভাগই মাদকাসক্ত। যে কারণে এদের  নিয়ন্ত্রণ করা আরো কঠিন। এরা সাধারণত একটু বেপরোয়া।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় র‌্যাব-৩-এর সদস্যরা রাজধানীর পল্টন এলাকা থেকে জুম্মন শেখ (৩০), মো. রুবেল (৩২) ও গোলাম মোস্তফা (৬২) নামের তিন ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করে। 

বিষয়টির খোঁজ নিতে গিয়ে পাওয়া যায় অবাক হওয়ার মতো তথ্য। গ্রেপ্তারকৃত তিন ছিনতাইকারীর মধ্যে বৃদ্ধ গোলাম মোস্তফা একতারা হাতে নিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়ান। প্রায়ই গানও শোনান লোকদের। আর এই গান শোনানোর আড়ালে তিনি ছিনতাইচক্রের সঙ্গে কাজ করেন। তাঁর কাছে থাকে মানুষজনকে অজ্ঞান করার সরঞ্জাম। আর তিনি নিজেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাত থেকে বাঁচাতে বেঁচে নিয়েছিলেন গায়কের ছদ্মবেশ।

র‌্যাব-৩-এর অভিযান পরিচালনাকারী কর্মকর্তা এডিসি এডিএম ফয়জুল ইসলাম গত বুধবার বিকেলে কালের কণ্ঠকে জানান, ‘আমাদের কাছে গোপন সংবাদ ছিল যে পল্টন এলাকায় ছিনতাইয়ের জন্য তারা প্রস্তুতি নিচ্ছে। র‌্যাব সদস্যদের দেখে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। বৃদ্ধ মোস্তফা প্রথমে স্বীকারই করতে চায়নি যে সে ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। পরে তথ্য প্রমাণ দেওয়া হলে সব স্বীকার করেন। মোস্তফা জানান, অনেক বছর ধরে তিনি ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য হিসেবে কাজ করেন। 

পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, কোরবানি ঈদের সময় ছিনতাইকারী ও ডাকাতদলের সদস্যরা গরুর ব্যাপারী ও গরু কিনতে আসা লোকজনকেই টার্গেট করে বেশি। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতার কারণেই এখন পর্যন্ত তেমন বড় কোনো ঘটনা ঘটেনি। তিনি আরো জানান, ঈদের আগের এই সময়টায় মোবাইল ফোনসেটসহ মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার সংঘবদ্ধ টানাপার্টিও সক্রিয় থাকে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই তারা মোটরসাইকেল ব্যবহার করে।

ছিনতাইয়ের বিষয়ে জানতে চাইলে ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘কোরবানি ঈদের আগে ছিনতাই বেড়ে যায়। এ কারণে কোনো ছিনতাই যাতে না হয় সে জন্য ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তারেই আমাদের নজর বেশি। এরই মধ্যে অনেক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গরুর হাট ও এর আশপাশের এলাকাগুলোতে পোশাকদারি ও সাদা পোশাকে দায়িত্ব পালন করছি আমরা।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা