kalerkantho

শনিবার  । ১৯ অক্টোবর ২০১৯। ৩ কাতির্ক ১৪২৬। ১৯ সফর ১৪৪১         

সচিব পর্যায়ের বৈঠক আজ

জেআরসির বৈঠকে গুরুত্ব পাচ্ছে গঙ্গা ব্যারাজ

ছয়টি নদীর পানিবণ্টন নিয়েও আলোচনা হতে পারে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দীর্ঘ আট বছর পর আজ বৃহস্পতিবার ঢাকায় বাংলাদেশ ও ভারতের পানিসম্পদ সচিবদের বৈঠক হচ্ছে। যৌথ নদী কমিশনের (জেআরসি) সচিব পর্যায়ের এ বৈঠকে গঙ্গা ব্যারাজে অর্থায়ন ও কারিগরি সহায়তাসহ ধরলা, দুধকুমার, মনু, খোয়াই, গোমতী, মুহুরী নদীর পানিবণ্টন গুরুত্ব পেতে পারে। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেবেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার। ভারতের জলশক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব রতন লাল কাটারিয়া তাঁর দেশের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন। এর আগে ২০১১ সালের ১০ জানুয়ারি ঢাকায় জেআরসির সচিব পর্যায়ের বৈঠকে তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তির খসড়া চূড়ান্ত হয়েছিল। ওই বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিংয়ের সফরের প্রাক্কালে জেআরসির মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে তা চূড়ান্ত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আপত্তিতে তা ভেস্তে যায়।

গত সপ্তাহে ব্যাংককে এক বৈঠকে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্কর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনকে বলেছেন, তিস্তা চুক্তি চূড়ান্ত হয়ে আছে; কিন্তু ভারত এ বিষয়ে কোনো দিনক্ষণ দিতে পারবে না।

জানা গেছে, আজকের বৈঠকে আলোচ্যসূচির মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাবে গঙ্গা ব্যারাজ। কারণ শুষ্ক মৌসুমে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে নদ-নদী ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় গঙ্গা ব্যারাজের কোনো বিকল্প নেই। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নয়াদিল্লি সফরের সময় গঙ্গা ব্যারাজ নির্মাণে একটি সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে গঙ্গা ব্যারাজ নির্মাণের স্থান নিয়ে আপত্তি তুলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর বিরোধিতা করলে সমঝোতা স্মারক সই হয়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা