kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সাংবিধানিক পদাধিকারীদের আইন অনুযায়ী প্রটোকল দিতে হবে : হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংবিধান, রাষ্ট্রীয় পদক্রম (ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স) ও দেশে প্রচলিত আইন অনুযায়ী যাঁরা যেভাবে সুবিধাদি (প্রটোকল) পাচ্ছিলেন তাঁদের আগের মতোই প্রটোকল নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসক (ডিসি), পুলিশ সুপারসহ (এসপি) সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। কোনো প্রকার ব্যর্থতা ছাড়াই এই প্রটোকল দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

একটি রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বুধবার এ নির্দেশ দিয়েছেন।

আদালতের এই আদেশ অতিসত্বর দেশের সকল জেলা জজদের কাছে পৌঁছে দিতে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে আদেশের অনুলিপি মন্ত্রিপরিষদসচিব ও জনপ্রশাসন সচিবের কাছে পাঠাতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের আরো দায়িত্বশীল হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন উচ্চ আদালত।

‘রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ ভিভিআইপি বা ভিআইপি নন’ বলে আদালতের করা মন্তব্যকে কিছু কিছু গণমাধ্যম ‘হাইকোর্টের আদেশ’ বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এসব প্রতিবেদন যুক্ত করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. শাহিনুর রহমান। এ রিট আবেদনের ওপর শুনানি শেষে আদালত এ আদেশ দেন।

রিট আবেদনকারীপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট একরামুল হক টুটুল, সৈয়দ মামুন মাহবুব ও তাপস কুমার বিশ্বাস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

আদেশের পর অ্যাডভোকেট একরামুল হক টুটুল সাংবাদিকদের বলেন, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিসহ সাংবিধানিক পদধারীদের এবং রাষ্ট্রীয় পদক্রম (ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স) অনুযায়ী যাঁরা যা প্রটোকল পাচ্ছিলেন, তাঁদের আগের মতোই প্রটোকল দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

গত ২৫ জুলাই রাতে সরকারের এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পে কর্মরত যুগ্ম সচিব আব্দুস সবুর মণ্ডলের গাড়ির অপেক্ষায় মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটে প্রায় তিন ঘণ্টা ফেরি আটকে রাখায় স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষ অ্যাম্বুল্যান্স মারা যায়। এ ঘটনায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করে তিতাসের পরিবারকে তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়। এই রিট আবেদনের ওপর শুনানিকালে গত ৩১ জুলাই হাইকোর্ট বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়া দেশে কেউ ভিআইপি নয়। এই দুইজন ছাড়া অন্য সব সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী। ‘সারা বিশ্বে ফায়ার সার্ভিস, অ্যাম্বুল্যান্স ও নিরাপত্তার জন্য পুলিশের গাড়ি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেতে দেওয়া হয়। কিন্তু আমাদের দেশে তার উল্টো। ভিআইপি কারা সেটা আইনেই বলে দেওয়া আছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা