kalerkantho

মিঠাপুকুরে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’

এনজিওর মামলায় কারাগারে স্বামী

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, রংপুর   

৭ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুরের মিঠাপুকুরে জান্নাতী বেগম নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গত সোমবার পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে। এর দুই দিন আগে ঋণখেলাপির অভিযোগে এক এনজিওর করা মামলায় গ্রেপ্তার হন জান্নাতীর স্বামী চান্দু মিয়া (৪০)। পুলিশের ধারণা, পারিবারিক অশান্তির কারণে ওই নারী আত্মহত্যা করেছেন।

চান্দু মিয়ার স্বজনরা জানায়, খোড়াগাছ ইউনিয়নের পদাগঞ্জ মাদরাসাপাড়ার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী চান্দু মিয়া ২০১১ সালে ‘আশা’র খোড়াগাছ ইউনিয়নের অরুন্নেছা শাখা থেকে এক লাখ ৩০ হাজার টাকা ঋণ নেন। ঋণের টাকা শোধ করতে না পারায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করে ওই এনজিও। ওই মামলায় গত শনিবার গ্রেপ্তার করা হয় চান্দু মিয়াকে। এ ঘটনার দুই দিন পর গত সোমবার জান্নাতীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

আশার অরুন্নেছা শাখার ব্যবস্থাপক অরবিন্দু রায় স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, ‘টাকা পরিশোধের জন্য বহুবার চান্দু মিয়াকে অনুরোধ করা হয়। তিনি কারো কথা শোনেননি। শেষমেশ সাড়ে ৯৫ হাজার টাকা পরিশোধ না করার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়।’

মিঠাপুকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, ‘চান্দু মিয়ার গ্রেপ্তারের সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর মৃত্যুর কোনো সম্পর্ক নেই। পারিবারিক অশান্তি আর হতাশা থেকে তিনি দীর্ঘদিন অসুস্থ হয়ে পড়ে ছিলেন। আর চান্দু মিয়া দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন।’

মন্তব্য