kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

বিআরটিসির বহরে ১১৫০ বাস

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বিআরটিসির বহরে ১১৫০ বাস

রাজধানী থেকে ঈদ যাত্রার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে আগেই। আর মহাসড়কগুলোতে ঈদ যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে থাকছে বিআরটিসির এক হাজার ১৫০টি বাস। মহাসড়কের পাশে পশুর হাট বসানো যাবে না। ফিটনেসহীন বাস নামালে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর ঈদ যাত্রায় যাত্রীদের কাছ থেকে কোনোক্রমেই বাড়তি ভাড়া আদায় করা যাবে না। মহাসড়কে ঈদ যাত্রার প্রস্তুতি বিষয়ে গতকাল সোমবার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত সমন্বয়সভায় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসব সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন।

এদিকে ঈদ যাত্রা ডেঙ্গুমুক্ত রাখতে আজ মঙ্গলবার ঢাকার চারটি বাস টার্মিনালে এডিস মশা দমন অভিযান শুরু হচ্ছে। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করবে। 

মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে গতকাল সকালে অনুষ্ঠিত সভায় সওজ অধিদপ্তর, পরিবহন মালিক, শ্রমিক প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

সভায় সড়কমন্ত্রী বলেন, এবার ঈদ যাত্রার বিশেষ সেবায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) প্রায় এক হাজার ১৫০টি বাস থাকবে। এর মধ্যে ভারতীয় ঋণ কর্মসূচির আওতায় আনা ২৫০টি বাস ঈদ যাত্রার বহরে যোগ হবে। জরুরি প্রয়োজনে যাতায়াতে ৫০টি বাস প্রস্তুত রাখা হবে। তৈরি পোশাক শ্রমিকদের পরিবহনের জন্য ঢাকায় ১৫১টি এবং চট্টগ্রামে ২০টি বাস রাখা হবে।

সড়ক-মহাসড়কের পাশে কোরবানির পশুর হাট বন্ধ করতে জনপ্রতিনিধি, জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, পশুবাহী যানবাহন ধীরগতিতে চলে। এতে অন্যান্য যানবাহনেরও স্বাভাবিক গতি কমে আসে। এর ওপর ফিটনেসবিহীন গাড়িতে পশু বহন করলে তা যানজটের ঝুঁকি বাড়ায়। ফিটনেসবিহীন গাড়িতে পশু পরিবহন উৎসমুখে বন্ধ করতে হবে। একাধিক চালক নিয়োগ দিতে পরিবহন মালিকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

টার্মিনালগুলোতে ব্যবস্থাপনা আরো সেবাবান্ধব করার তাগিদ দিয়ে সড়কমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি টার্মিনালে বিআরটিএর মোবাইল কোর্ট ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত ভিজিল্যান্স টিম কার্যকর থাকবে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারী বাস সার্ভিসের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা গেছে, টার্মিনাল ত্যাগ করার আগে প্রতিটি বাসে মশানাশক ওষুধ ছিটানোর জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের। টার্মিনাল কর্তৃপক্ষ ও পরিবহন মালিক সমিতি এরই মধ্যে এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে পরিকল্পনা নিয়েছে। ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি গত রবিবার এ বিষয়ে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে সভাও করেছে। সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে, আজ থেকে রাজধানীর সায়েদাবাদ, ফুলবাড়িয়াসহ চার বাস টার্মিনালে দূরপাল্লার বাসে যাত্রী ওঠার আগে ওষুধ ছিটানোসহ পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি চলবে।

এ ব্যাপারে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা মঙ্গলবার থেকে কর্মসূচি বাস্তবায়ন শুরু করছি।’

মৌসুমি ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব নাকচ : জানা গেছে, গতকালের সভায় শীর্ষ পরিবহন নেতা খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ বিমানসহ বিভিন্ন পরিবহনে উৎসব মৌসুমে বেশি ভাড়া নেওয়া হয় উল্লেখ করে বাসে মৌসুমি ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব করেন। তবে কোরবানির ঈদে তা না করার পক্ষে সিদ্ধান্ত হয়।

এ ব্যাপারে এনায়েত উল্ল্যাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ঈদের সময় বাসগুলো যাত্রী ছাড়াই প্রারম্ভিক টার্মিনালে ফিরে আসে। ফলে পরিবহন মালিকরা ক্ষতিগ্রস্ত হন। ভবিষ্যতে প্রস্তাবটি বিবেচনায় রাখা হবে—এমনটা প্রত্যাশা আমাদের।’

ঈদের তিন দিন আগে থেকে ট্রাকসহ ভারী যান বন্ধ থাকবে : সভায় জানানো হয়, গত ১ আগস্ট থেকে সারা দেশে সিএনজি স্টেশনগুলো নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ শুরু করেছে। ঈদের আগে তিন দিন মহাসড়কে ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ও অন্যান্য ভারী যান চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে রপ্তানিযোগ্য পণ্য, খাদ্য, ওষুধ, পচনশীল দ্রব্য ও পশুবাহী গাড়ি এর আওতামুক্ত থাকবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা