kalerkantho

রবিবার  । ১৫ চৈত্র ১৪২৬। ২৯ মার্চ ২০২০। ৩ শাবান ১৪৪১

খালেদার প্যারোল ইস্যু

‘বিএনপি আবেদন করবে কি না হাইকমান্ড জানে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুটি দুর্নীতির মামলায় ১৭ বছরের দণ্ড মাথায় নিয়ে কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্যারোলের (শর্তসাপেক্ষে মুক্তি) বিষয়ে বিএনপি বা নিকটাত্মীয়দের পক্ষ থেকে কোনো আবেদন করা হয়নি বলে জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবী ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন।

গতকাল রবিবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে ল’ রিপোর্টার্স ফোরাম কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ব্যারিস্টার মাহবুব এ কথা বলেন। এর আগে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় জাতিসংঘের নির্যাতনবিরোধী কমিটির সভায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি গণমাধ্যমের কাছে লিখিত বক্তব্য দেন। এ বক্তব্যের প্রেক্ষাপটেই খালেদা জিয়ার প্যারোল নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়েন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার খোকন। এ সময় আইনজীবী সমিতির সহসম্পাদক অ্যাডভোকেট শরীফ ইউ আহমেদ ও কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য অ্যাডভোকেট মির্জা আল মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

ব্যারিস্টার খোকন বলেন, খালেদা জিয়ার প্যারোলের বিষয়ে সরকার বিভিন্ন বক্তব্য দিচ্ছে। কিন্তু ওই সব বক্তব্য দেওয়া ছাড়া তারা প্যারোলের বিষয়ে খালেদা জিয়ার পরিবার বা আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। সরকার রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখেছে। সরকার তাঁকে কারাগারে রেখেই রাজনীতি করতে চায়।

বিএনপির এই নেতা আরো বলেন, ‘এক-এগারোর সময়ে আমি খালেদা জিয়ার দুই ছেলে তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে কাজ করেছি। সে সময় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে। তাদের কথা অনুযায়ী আমরা আবেদন করেছি। খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ। তবুও তাঁর প্যারোলের বিষয়ে সরকার কোনো যোগাযোগ করেনি।’

খালেদা জিয়ার প্যারোলের জন্য আবেদন করেছেন কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে ব্যারিস্টার খোকন বলেন, ‘না, আবেদন করা হয়নি।’ আবেদন করবেন কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা হাইকমান্ডের বিষয়।’ আপনারা আবেদন না দিলে সরকার কেন প্যারোলে মুক্তি দেবে; নিজেরা আবেদন না করে সরকারের ওপর দায় চাপাচ্ছেন কি না—এমন প্রশ্নের কোনো জবাব দেননি এই আইনজীবী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা