kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

সোনারগাঁয় শিপইয়ার্ডে বার্জ বিস্ফোরণ, নিহত ১

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ইসলামপুরে আনন্দ শিপইয়ার্ড নামের একটি জাহাজ তৈরির প্রতিষ্ঠানে গতকাল শনিবার বার্জ বিস্ফোরণে সাব্বির হোসেন (১৫) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আরো তিন শ্রমিক মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনায় ওই প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তাকে আটক করেছে।

সোনারগাঁ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রাজু মণ্ডল জানান, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ইসলামপুর এলাকায় আনন্দ গ্রুপের আনন্দ শিপইয়ার্ড অ্যান্ড শ্লিপওয়েজ লিমিটেডে নির্মাণাধীন জাহাজে হঠাৎ বিকট শব্দে বার্জ বিস্ফোরিত হয়। এ সময় সাব্বির হোসেন নামের এক শ্রমিক ঘটনাস্থলেই নিহত হয় এবং রবিন হোসেন, সোহেল মিয়া ও নাজির হোসেন নামের তিন শ্রমিক গুরুতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ইয়াবা দিয়ে ঠিকাদারকে ফাঁসানোর চেষ্টা

সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডের এক ঠিকাদারের কাছ থেকে চাঁদা না পেয়ে তাঁকে পিটিয়ে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শনিবার আদমজী ইপিজেডের পাশে ঘটা এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন সিদ্ধিরগঞ্জের বার্মাস্ট্যান্ড এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে সোহেল এবং ইউসুফ পাটোয়ারীর ছেলে সজীব। তাঁরা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মণ্ডলের ক্যাডার হিসেবে পরিচিত। মারধরে আহত ঠিকাদার রফিকুল ইসলাম ঝন্টুকে উদ্ধার  করে পুলিশ নারায়ণগঞ্জ খানপুর  হাসপাতালে পাঠায়। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আদমজী ইপিজেডের স্ক্যানডেক্স গার্মেন্টসহ ইপিজেডের কয়েকটি কারখানায় অপারেটর সরবরাহ করে আসছিলেন রফিকুল ইসলাম ঝন্টু। তাঁর কাছে কয়েক দিন ধরে চাঁদা চাচ্ছিলেন সোহেল, সজীবসহ কয়েকজন। তাঁরা ঝন্টুকে আদমজী ইপিজেডের ঠিকাদারি কাজ থেকে সরানোর জন্য গতকাল ইপিজেডের প্রধান ফটক থেকে ধরে নিয়ে যান কাছেই আজমেরী হোটেলের পাশে। সেখানে তাঁরা ঝন্টুকে বেধড়ক পিটিয়ে তাঁর পকেটে ১৫টি ইয়াবা ঢুকিয়ে দিয়ে পুলিশকে খবর দেন। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক সামছুল আলম ঘটনাস্থলে গিয়ে আশপাশের দোকানের সিসিটিভির ফুটেজ দেখলে এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা শুনলে সত্য ঘটনাটি বেরিয়ে আসে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা