kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

কলকাতায় বেকার হোস্টেলে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্য প্রতিস্থাপন

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলকাতায় বেকার হোস্টেলে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্য প্রতিস্থাপন

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিবিজড়িত কলকাতার বেকার হোস্টেলে তাঁর আবক্ষ ভাস্কর্যটি প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে ভাস্কর্যটি উন্মোচন করেন স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

জানা গেছে, আগের ভাস্কর্যটিতে বঙ্গবন্ধুর চেহারা পুরোপুরি ফুটে না ওঠায় বাংলাদেশ তা প্রতিস্থাপন করেছে। গত বুধবার বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ভাস্কর্যটি কলকাতায় পাঠানো হয়। ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ করেই বাংলাদেশ এটি প্রতিস্থাপন করেছে। ১৯৪৫-৪৬ সালে বঙ্গবন্ধু কলকাতার ইসলামিয়া কলেজের (বর্তমান মৌলানা আজাদ কলেজ) ছাত্র থাকাকালে এই হোস্টেলের ২৪ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

ভাস্কর্য প্রতিস্থাপন অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, পশ্চিমবঙ্গের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী জাভেদ খান, কলকাতায় বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান ও উপহাইকমিশনের অন্যান্য কূটনীতিক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এরপর তাঁরা বেকার হোস্টেলে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিকক্ষটি ঘুরে দেখেন। অনুষ্ঠানে বেকার হোস্টেলের শিক্ষার্থীরাও উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে ১৯৯৮ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উদ্যোগে বেকার হোস্টেলের ২৩ ও ২৪ নম্বর কক্ষ নিয়ে গড়া হয় বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষ। সেখানে বঙ্গবন্ধুর ব্যবহৃত খাট, চেয়ার, টেবিল ও আলমারি রয়েছে। ১৯৯৮ সালের ৩১ জুলাই পশ্চিমবঙ্গের তৎকালীন উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী অধ্যাপক সত্যসাধন চক্রবর্তী বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন। এরপর ২০১১ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি বেকার হোস্টেলে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্য উদ্বোধন করেছিলেন। ওই ভাস্কর্যটি বঙ্গবন্ধুর চেহারার সঙ্গে সংগতিপূর্ণ না হওয়ায় বিভিন্ন মহল থেকে তা প্রতিস্থাপনের দাবি উঠেছিল। প্রায় আট বছর পর গতকাল বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল প্রতিস্থাপিত হলো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা