kalerkantho

গয়েশ্বর বললেন

বর্তমান সরকার ডেঙ্গুর চেয়ে ভয়াবহ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘ডেঙ্গু বনাম খুন-গুম-নারী নির্যাতন। এই দুটি যদি প্রতিযোগিতা হয় দেখা যাবে, এখনো শিরোপা কেউ অর্জন করে নাই। অর্থাৎ গুম-খুন-নারী নির্যাতনের সঙ্গে যারা জড়িত তারা ডেঙ্গুর চেয়েও ভয়াবহ। ডেঙ্গুতে এই পর্যন্ত যতজন মারা গেছে, তার চেয়ে গুম-খুন-নারী নির্যাতনে লাশের মিছিল অনেক বড়। তাহলে ডেঙ্গুর চেয়ে ভয়াবহ কে? এই সরকার। তারা ডেঙ্গুর চেয়েও ভয়ানক। ডেঙ্গু যাবে। কিন্তু খুন-গুমের সঙ্গে, নারী নির্যাতনের সঙ্গে, শিশু অপহরণে সঙ্গে যারা জড়িত তারা তো যাবে না।’

গতকাল শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের মওলানা আকরম খাঁ হলে জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের উদ্যোগে ‘মানবাধিকার ও আইনের শাসনের চরম অবনতি : কোন পথে বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে গয়েশ্বর এ কথা বলেন।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ডেঙ্গু জাতীয় সমস্যা, প্রতিটি মানুষের সমস্যা। এডিস মশা আওয়ামী লীগকেও চেনে না, বিএনপিও চেনে না, সরকারি দল চেনে না, ডাক্তারও চেনে না, ইঞ্জিনিয়ারও চেনে না, ধনীও চেনে না, গরিবও চেনে না। এদের সুযোগ দিলে সুযোগটা পায়। এই ডেঙ্গু সমস্যার সমাধান মিলেমিশে করতে হবে, সম্মিলিতভাবে করতে হবে।

তিনি বলেন, দুটি সিটি করপোরেশনকে মানুষ রসিকতা করে বলে ‘সিটি করাপশন’। অর্থাৎ এগুলো করাপশনের (দুর্নীতি) আড্ডাখানা। তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনের সাধারণ মশা মারার একটা প্রকল্প আছে, সুনির্দিষ্ট বিভাগ, কর্মকর্তা-কর্মচারী আছে। প্রতিবছর ওষুধ বা ভেজাল যেটাই বলুন কেনা হয়। কিন্তু এ খাতের টাকা বাঁচিয়ে তাদের মধ্যে ভাগাভাগি করা হয়। ফলে যতটুকু সামর্থ্য আছে তা সঠিকভাবে ব্যবহার হয় না।

সংগঠনের সভাপতি মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে ও খন্দকার মো. মহিউদ্দিন মাহির সঞ্চালনায় আলোচনাসভায় বিএনপির হাবিবুর রহমান হাবিব, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, সংগঠনের নেতা আবদুল্লাহ-হিল মাসুদ, মিয়া মো. আনোয়ার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

 

মন্তব্য