kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

ঠাকুরগাঁওয়ে দুই বাসের সংঘর্ষ

অতিরিক্ত গতির বলি ১০ যাত্রী

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ঠাকুরগাঁওয়ের বড়খোঁচাবাড়ী এলাকায় দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ২১ জন। বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা বলছে, অতিরিক্ত গতির কারণেই আট যাত্রীকে প্রাণ দিতে হয়েছে। এদিকে ঢাকার ধামরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় লরির ধাক্কায় নিহত হয়েছেন এক যুবক। বাসের চাপায় এক শিক্ষার্থীর প্রাণ গেছে সাভারে। ট্রাক উল্টে পাঁচটি গরুর মৃত্যু হয়েছে বরিশালের গৌরনদীতে। কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের খবরে বিস্তারিত :

ঠাকুরগাঁও : দুর্ঘটনাটি ঘটে গতকাল সকাল ৯টার দিকে; জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বড়খোঁচাবাড়ী এলাকায়। দুর্ঘটনাকবলিত ডিপজল পরিবহনের বাসটি ঠাকুরগাঁওয়ের দিকে যাচ্ছি। আর নিশাত পরিবহনের বাসটি যাচ্ছিল দিনাজপুরের দিকে।

নিহত আটজন হলেন ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার কালমেঘ জিয়াবাড়ী এলাকার মোস্তফা কামাল (৪০), তাঁর স্ত্রী মনসুরা বেগম (৩৬), একই উপজেলার সনগাঁও এলাকার আব্দুর রহিম (৩৯), লাহিড়িবাজার এলাকার অনিল সাহার স্ত্রী সরস্বতী সাহা (৩৫), একই এলাকার ক্ষীতিশ চন্দ্র (৪২), দিনাজপুরের কাহারোল রসুলপুর গ্রামের গলিয়া রায়ের স্ত্রী মঙ্গলি রানী (৬৬) ও মনেশ্বর রায়ের স্ত্রী জবা রানী (২৬), সদর উপজেলার পল্লীবিদ্যুৎ লক্ষ্মীপুর গ্রামের আব্দুল মজিদ, বালিয়াডাঙ্গির মিস্ত্রিপাড়ার দবিরুল ইসলামের স্ত্রী আনোয়ারা (৪৫) ও একই উপজেলার ধুকুরঝারি গ্রামের আবু সাইদের স্ত্রী কামরুন্নেসা (৬০)। আহতদের জেলা সদর হাসপাতাল এবং রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হতাহতদের বেশির ভাগই নিশাত পরিবহনের যাত্রী ছিলেন।

সুরেশ চন্দ্র নামে আহত এক যাত্রী বলেন, ‘আমি দিনাজপুরের দশমাইল থেকে ডিপজল পরিবহনের বাসে ঠাকুরগাঁও যাচ্ছিলাম। সড়ক ফাঁকা থাকায় চালক খুবই দ্রুত বাস চালাচ্ছিল। কিন্তু বড়খোঁচাবাড়ী এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা নিশাত পরিবহনের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। গাড়ির গতি কম থাকলে এমন দুর্ঘটনা ঘটত না।’

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান জানান, ঘটনার পর থেকে উভয় বাসের চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে।

জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম জানান, নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়েছে। নেওয়া হয়েছে আহতদের চিকিৎসার দায়িত্ব।

ধামরাই : দুর্ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার রাত ১০দিকে; ধামরাইয়ের বারবাড়িয়া ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস ওষুধ কারখানার সামনের সড়কে। নিহত দুজন হলেন সুতিপাড়া ইউনিয়নের বালিথা উত্তরপাড়া গ্রামের কোরবান আলীর ছেলে ও কলেজছাত্র সেলিম হোসেন (১৮) এবং একই গ্রামের মাসুদ রানা (২৮)। গুরুতর আহত হয়েছেন শাওন নামের একজন। পুলিশ জানায়, তিনজনই মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। কিন্তু কোনো একটি গাড়ি তাঁদের চাপা দেয়।

চট্টগ্রাম  : গতকাল শুক্রবার সকালে উত্তর পতেঙ্গায় অবস্থিত সামিট অ্যালায়েন্স পোর্ট লিমিটেডের কনটেইনার ডিপোতে কাজ করার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত রাসেল নগরের মধ্যম হালিশহর এলাকার মোজাফফর রহমানের ছেলে।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম বলেন, কনটেইনার ডিপোতে লরির ধাক্কায় গুরুতর আহত রাসেলকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

সাভার : বাসের চাপায় শিল্পী আক্তার (২০) নামে এক পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। গতকাল দুপুরে ঢাকা-আরিচা-মহাসড়কের সাভারের বিপিএটিসি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিল্পী কুমিল্লার দেবিদ্বার থানা এলাকার গুনাইঘর গ্রামের শাহ আলম মুন্সীর মেয়ে। তিনি চট্টগ্রাম মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে পড়তেন। আশুলিয়ায় ভাইয়ের বাড়ি বেড়াতে যাচ্ছিলেন তিনি।

গৌরনদী : দুর্ঘটনাটি ঘটে গতকাল সকালে গৌরনদী কমিনিউটি সেন্টারসংলগ্ন ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে। সেখানে গরুবোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। তাতে মারা যায় পাঁচটি গরু।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা