kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

অলি আহমদ বললেন

খালেদা জিয়া দেশে সম্মান পাচ্ছেন না

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় খালেদা জিয়াকে পাকিস্তানিরা যে সম্মান দিয়েছিল আজকে নিজের দেশে সেই সম্মান তিনি পাচ্ছেন না বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মুক্তি মঞ্চের প্রধান ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি অলি আহমদ। তিনি বলেন, ‘যাদের (পাকিস্তান) আমরা গালি দেই, তারাও বেগম জিয়াকে সর্বোচ্চ সম্মান দিয়েছিল। অথচ যারা নিজেদের জাতির পিতার সন্তান হিসেবে দাবি করেন তাঁদের কাছে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কোনো সম্মান নাই।’

গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে এলডিপি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অলি আহমদ এসব কথা বলেন।

বিএনপি ছেড়ে এসে এলডিপি গঠন করা এই নেতা বলেন, ‘একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে বন্দি অবস্থায় পাকিস্তানিরা খালেদা জিয়াকে অসম্মান করেনি। বেগম জিয়া একজন মুক্তিযোদ্ধা। এ কারণেই তিনি পাকিস্তানিদের হাতে বন্দি ছিলেন। অনেকে বলতে পারেন, তবে তাঁকে কেন এত সম্মান দেওয়া হয়েছিল? আমি এখানে জনগণকে বলতে চাই যে নিয়াজী (মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডের অধিনায়ক আমির আবদুল্লাহ খান নিয়াজী) সাহেব এখানে ছিলেন। তিনি ছিলেন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের প্রথম অধিনায়ক। প্রথম অধিনায়ক হলো পিতার মতো। সুতরাং ব্যাটালিয়নের অন্যান্য অফিসার হলো তাঁর সন্তানের মতো, অফিসারদের স্ত্রীরা ছিল তাঁর মেয়ের মতো। পাকিস্তানি সৈন্যরা অনেক কিছু করেছে, কিন্তু তাদের যে একটা কালচার, তাদের যে একটা স্ট্যান্ডার্ড সেটা তারা বিসর্জন দেয় নাই।’

খালেদা জিয়ার বয়স, দেশের জন্য তাঁর অবদান এবং প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের অবদানের কথা বিবেচনা করে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টের প্রতি আহ্বান জানান অলি আহমদ।

অলি আহমদ জানান, আগামী ৬ আগস্ট ঢাকায় জাতীয় মুক্তি মঞ্চের উদ্যোগে দেশের সার্বিক বিষয়ের ওপর কর্মশালা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে কল্যাণ পার্টির প্রধান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) নেতা রাশেদ প্রধান, বিএনপির সারোয়ার হোসেন, জমিয়তে উলামা ইসলামের মুফতি মুনির হোসেন কাশেমী, এলডিপির সাহাদাত হোসেন সেলিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা