kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

কুলাউড়ায় বলাৎকারের পর স্কুলছাত্রকে হত্যা!

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুলাউড়ায় এক স্কুলছাত্রকে বলাৎকারের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে দুই কিশোরের বিরুদ্ধে। গত বুধবারের এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই কিশোর ও এক কিশোরের বাবা মিরজান আলীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁদের বাড়ি কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের বালিশ্রী গ্রামে।

নিহত পলাশ শব্দকর (৯) স্থানীয় শংকরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র ও বালিশ্রী গ্রামের রিকশাচালক পরিমল শব্দকরের ছেলে। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত বুধবার সকালে পরিমল শব্দকরের বাড়ির পাশে একটি জমিতে ধান রোপণ করছিল পলাশ। এ সময় প্রতিবেশী এক কিশোর (১৫) সেখান থেকে পলাশকে ফুসলিয়ে নিয়ে যায়। পরিমল অনেক খোঁজাখুঁজি করে ছেলেকে না পেয়ে সন্ধ্যায় কুলাউড়া থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। কুলাউড়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. শাহজাহান রাতে পলাশের বাড়িতে এ বিষয়ে বৈঠক ডাকেন। সেখানে একজন সাক্ষী দেয়, ওই কিশোর পলাশকে নিয়ে চা বাগানের ভেতরে গেলেও বিকেলে সে একা ফেরে। কিশোরটি তা অস্বীকার করলে শাহজাহান তাকে তার বাবার জিম্মায় দেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ তদন্তে গেলে এলাকাবাসীর দেওয়া তথ্য মতে অভিযুক্ত কিশোরকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়। সেখানে সে বলে, সে ও আরেক কিশোর পলাশকে বলাৎকার ও হত্যা করে। তার দেওয়া তথ্যে দুপুরে উপজেলার কালিটি চা বাগান এলাকা থেকে পলাশের মৃতদেহ উদ্ধার এবং অভিযুক্ত আরেক কিশোরকে আটক করে পুলিশ। এ সময় এলাকাবাসী পুলিশ দেরিতে তদন্তে আসায় উত্তেজিত হয়ে ওঠে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম সফি আহমদ সলমান ঘটনাস্থলে গিয়ে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

কুলাউড়া থানার ওসি মো. ইয়ারদৌস হাসান বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। অভিযুক্তদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা