kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা

খালেদার জামিন আবেদন হাইকোর্টে সরাসরি খারিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পদে থেকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে এ রকম অপরাধ করা কারো কাম্য নয়। এ ছাড়া এ মামলায় নিম্ন আদালতে সর্বোচ্চ সাজা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া জামিন দেওয়ার সপক্ষে অকাট্য যুক্তি খুঁজে পাইনি। তাই অপরাধের গুরুত্ব বিবেচনায় জামিনের আবেদন সরাসরি খারিজ করা হলো। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বুধবার বিকেলে এ আদেশ দেন।

এই খারিজের ফলে কারামুক্তির জন্য দুটি মামলায় দেশের সর্বোচ্চ আদালত থেকে জামিন নিতে হবে খালেদা জিয়াকে। এরই মধ্যে হাইকোর্টের রায়ের পর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় আপিল বিভাগে জামিনের আবেদন করা হয়েছে। এখন জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায়ও আপিল বিভাগে জামিনের আবেদন করতে হবে। 

আদেশের পর রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, তিন যুক্তিতে জামিন আবেদন খারিজ করা হয়েছে। মামলায় অপরাধের ধরণ, নিম্ন আদালতের দেওয়া সর্বোচ্চ সাজা এবং আপিলের শুনানির জন্য যাবতীয় নথি ইতিমধ্যে হাইকোর্টে চলে আসার বিষয়টি বিবেচনা করে আদালত জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন।

আদেশের পর খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, এই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে কি না, তা সিনিয়রদের সঙ্গে বসে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এদিকে গতকাল আদেশ দিয়েই বিচারপতিরা এজলাস থেকে নেমে যাওয়ার সময় বিএনপি সমর্থক কিছু আইনজীবী হৈচৈ করেন। তাঁরা বিচারপতিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কটূক্তিও করেন। গতকাল আদেশের সময় খালেদা জিয়ার পক্ষে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা