kalerkantho

রবিবার । ২০ অক্টোবর ২০১৯। ৪ কাতির্ক ১৪২৬। ২০ সফর ১৪৪১                

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

ধর্ষণ-নিপীড়ন বিরোধী পথনাটক ‘বিচার দাবি’

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৪ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশব্যাপী ক্রমবর্ধমান নারী-শিশু ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) পথনাটক ‘বিচার দাবি’ প্রদর্শিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি স্থানে এ নাটক প্রদর্শিত হয়। রাবি কেন্দ ীয় সাংস্কৃতিক জোট এই পথনাটকের আয়োজন করে।

সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপস্থাপনায় টুকিটাকি চত্বরে নাটকটির প্রথম প্রদর্শনী হয়। নাটক শেষে সেখান থেকে ধর্ষণবিরোধী শোভাযাত্রা বের করা হয়। পরে ক্যাম্পাসের ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ একাডেমিক ভবনের সামনে দ্বিতীয় এবং ক্যাম্পাসের পরিবহন মার্কেটের আমতলায় তৃতীয় প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়।

নাটকের দৃশ্যে দেখানো হয়, চেয়ারম্যানের ছেলে একটি মেয়েকে ধর্ষণ করে। মেয়েটি জ্ঞান ফিরে পাওয়ার পর বাড়িতে গিয়ে মাকে ঘটনাটি খুলে বলে। মা বিচারের জন্য চেয়ারম্যানের কাছে যান। কিন্তু অপরাধী সন্তানের বিচার না করে বরং দোষ লুকাতে তৎপর হয়ে ওঠেন চেয়ারম্যান। পুলিশসহ উর্ধ্বতনদের কাজে লাগিয়ে তিনি তাঁর ছেলের অপরাধ ধামাচাপা দেন। অপরাধীর অপরাধ ক্ষমতার আড়ালে ঢেকে গেলেও মেয়েটিকে লাঞ্ছনার গ্লানি বয়ে বেড়াতে হয়। সমাজের মানুষের কাছে প্রতিনিয়ত হেয় হতে থাকে সে। বাধ্য হয়ে মেয়েটি আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

এদিকে নাটকের প্রদর্শনী শেষে রাবি ক্যাম্পাসে ধর্ষণবিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। রাবি কেন্দ ীয় সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আজম হোসেনের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক তমালিকা বিশ্বাসের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষক সুখন সরকার, সাবেক সাংস্কৃতিককর্মী নৃপেন হাজরা।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা