kalerkantho

শনিবার । ২০ জুলাই ২০১৯। ৫ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৬ জিলকদ ১৪৪০

অর্থ আত্মসাৎ, হুমকির অভিযোগ

আজিজ কো-অপারেটিভ ব্যাংক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ এবং প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমণ্ডি এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাঁর দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, সুফিয়া আক্তার নামের এক গ্রাহক ১৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে তাজুলসহ আজিজ কো-অপারেটিভ ব্যাংকের কয়েকজন দায়িত্বশীল ব্যক্তির বিরুদ্ধে বংশাল থানায় মামলা করেছেন। তাঁদের বিরুদ্ধে গ্রাহকের অর্থ আত্মসাতের আরো অভিযোগ উঠেছে।

জানতে চাইলে সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শারমিন জাহান বলেন, ‘বংশাল থানায় দায়ের করা মামলায় আজ (গতকাল) ধানমণ্ডি থেকে তাঁকে (তাজুল) গ্রেপ্তার করেছে সিআইডির একটি দল। রবিবার সংবাদ সম্মেলনে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে।’

আদালত সূত্র জানায়, গতকাল তাজুলকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন সিআইডির তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মিল্লাত হোসেন দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংক লিমিটেডের বিরুদ্ধে গ্রাহকের আমানতের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পেয়েছেন সিআইডির সংঘবদ্ধ অপরাধ তদন্তকারীরা। এর মধ্যে সুফিয়া আক্তার নামের এক ভুক্তভোগী টাকা আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে বংশাল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার অন্য আসামিরা হলেন আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংক লিমিটেডের শাখা নিয়ন্ত্রক ও ব্যবস্থাপক লাকী খাতুন, শাখা ব্যবস্থাপক দ্বীন মোহাম্মদ, নবাবপুর শাখা ব্যবস্থাপক ইকবাল হোসেন ও উপদেষ্টা নুরুন্নবী। মামলায় অভিযোগ করা হয়, ২০১০ সালের ২০ অক্টোবর থেকে আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংক লিমিটেডের নবাবপুর শাখায় সুফিয়া আক্তার ১৬ লাখ ৬৩ হাজার ৩৩৫ টাকা জমা রাখেন।

মন্তব্য