kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী আসছেন কাল

সহজে ঋণ, জনশক্তি খাতে গুরুত্ব ঢাকার

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তিন দিনের সফরে আগামীকাল শনিবার বিকেলে বাংলাদেশে আসছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী লি নাক-ইয়োন। তাঁর এই সফরে দুই দেশের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় উঠবে বলে বাংলাদেশ আশা করছে। জানা গেছে, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রীর এই সফরকালে আলোচনায় বাংলাদেশকে সহজ শর্তে বাণিজ্যিক ঋণ প্রদান, জনশক্তি রপ্তানি ও বৃত্তি বাড়ানোর ওপর ঢাকা বিশেষ গুরুত্ব দেবে। এ ছাড়া রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় দক্ষিণ কোরিয়ার আরো জোরালো রাজনৈতিক ভূমিকা চাইবে বাংলাদেশ। বৈঠকে আলোচনা হতে পারে এ দেশে কোরীয় রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ এলাকার (ইপিজেড) বিভিন্ন সমস্যা নিয়েও।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ কোরিয়া বাংলাদেশের বড় উন্নয়ন সহযোগী। কিন্তু বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের কাতার থেকে উত্তরণের শর্ত পূরণ করায় দক্ষিণ কোরিয়া এখন আর ‘কনসেশনাল লোন’ (রেয়াতি ঋণ) দিতে আগ্রহী নয়। আবার বাণিজ্যিক ঋণের জন্যও বাংলাদেশকে সুনির্দিষ্ট প্রকল্প ও পরিকল্পনা নিতে হবে। সেই ঋণের সুদ যাতে ২ শতাংশের নিচে থাকে সে ব্যাপারে বাংলাদেশ দক্ষিণ কোরিয়াকে অনুরোধ করেছে।

দক্ষিণ কোরিয়া বাংলাদেশ থেকে কোরীয় ভাষা শিখিয়ে দক্ষ জনশক্তি নিয়ে থাকে। এ সংখ্যা আরো বাড়ানো এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশিদের জন্য শিক্ষা বৃত্তি বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশ অনুরোধ জানাবে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানিয়েছে, আগামীকাল বিকেলে বিশেষ বিমানে ঢাকায় পৌঁছার পর দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী উঠবেন ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে। সেদিন রাতেই তিনি সেখানে বাংলাদেশে কোরীয় সম্প্রদায়ের সঙ্গে নৈশভোজে অংশ নেবেন।

পরদিন রবিবার সকালে ঢাকার সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে স্বাধীনতার জন্য আত্মত্যাগকারী বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী। এরপর তিনি সাভারে ইপিজেড, ঢাকার মুগদাপাড়ায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যাডভান্সড নার্সিং এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ পরিদর্শনের পর দুপুরে হোটেলে কোরীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন। এরপর বাংলাদেশ ও কোরিয়ার ব্যবসায়ীদের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া শেষে যাবেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক এবং এরপর কয়েকটি চুক্তি/সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী আগামী রবিবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর সোনারগাঁও হোটেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আয়োজিত নৈশভোজে অংশ নেবেন। পরদিন সোমবার সকালে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সকাল ১১টায় বাংলাদেশ ছাড়বেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা