kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৮ জুলাই ২০১৯। ৩ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৪ জিলকদ ১৪৪০

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে রানি ম্যাক্সিমার সৌজন্য সাক্ষাৎ

বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০ বাস্তবায়নে ডাচ সহযোগিতা চেয়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০ বাস্তবায়নে ডাচ সহযোগিতা চেয়েছেন

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে গতকাল বঙ্গভবনে সাক্ষাৎ করেন নেদারল্যান্ডসের রানি ম্যাক্সিমা। ছবি : পিআইডি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাংলাদেশের বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০ বাস্তবায়নে নেদারল্যান্ডসের সহযোগিতা চেয়েছেন। ডাচ রানি ম্যাক্সিমা জরিগুয়েতা সেরুতি গতকাল বৃহস্পতিবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ সহযোগিতা চান। রাষ্ট্রপতির প্রেসসচিব  মো. জয়নাল আবেদিন বাসসকে এসব তথ্য জানান।

সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০ বাস্তবায়নে নেদারল্যান্ডসের বিশেষায়িত দক্ষতা, বিশেষ করে নদীশাসনে ডাচ অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায়। বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যকার সম্পর্ক বর্তমানে খুবই চমৎকার এবং তিনি আশা প্রকাশ করেন, এ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরো জোরদার হবে।

এ ছাড়া মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণকারী বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশের জন্য একটি বড় বোঝা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মিয়ানমারের এসব নাগরিকের নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণভাবে নিজ বাসভূমিতে ফেরা নিশ্চিত করতে নেদারল্যান্ডসসহ গোটা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা কামনা করেন।

এর আগে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করে ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন ঢাকা সফররত নেদারল্যান্ডসের রানি ম্যাক্সিমা। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এ আশ্বাস দেন। রানি জাতীয় পরিচয় পদ্ধতি প্রবর্তন করে তা ডিজিটাল পেমেন্ট প্ল্যাটফর্মগুলোতে লিংক করার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। একই সঙ্গে লিঙ্গবৈষম্য হ্রাসের বিষয়ে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ কৌশল প্রণয়নে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি।

বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন উদ্যোগ যেমন মোবাইল ফিন্যানশিয়াল সার্ভিসেস, এজেন্ট ব্যাংকিং ও এসএমই ঋণের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে ধারণা দেওয়াসহ বাংলাদেশে আর্থিক অন্তর্ভুক্তি ও নারীর ক্ষমতায়নের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে রানিকে অবহিত করা হয়। গভর্নর ফজলে কবির রানি ম্যাক্সিমাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, মোবাইল ব্যাংকিং প্ল্যাটফর্মকে অন্তর্চালিত করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক কাজ করছে। পাশাপাশি দেশের প্রথম জাতীয় আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কৌশল (এনএফআইএস) প্রণয়ন চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

এ সময় রানি ম্যাক্সিমা ডিজিটাল আর্থিক সেবায় নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধির ওপর জোর দেন। এ ছাড়া তিনি আর্থিক উদ্ভাবনের বিষয়গুলোর যত্ন নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকপর্যায়ে একটি নতুন অফিস স্থাপনের প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন। বৈঠকে ডেপুটি গভর্নরসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে গতকাল সকালে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ের প্যাসিফিক লাউঞ্জে দেশের বেসরকারি খাতের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন নেদারল্যান্ডসের রানি ম্যাক্সিমা।

মন্তব্য