kalerkantho

সিলেটে নদীতে ফেলে শিশু হত্যার অভিযোগ

সিলেট অফিস   

৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিলেটে নদীতে ফেলে মাহা নামের পাঁচ বছরের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে শিশুটির সত্মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত শুক্রবার বিকেলে শিশুটিকে ফেলে দেওয়া হয়। আর লাশ পাওয়া যায় গতকাল বিকেলে।

মাহার বাবা সিলেটের জালালাবাদ থানার ফতেহপুর খাসেরকান্দি গ্রামের বাসিন্দা। পেশায় একজন জেলে। পারিবারিক কলহের জেরে গত শুক্রবার বিকেলে সুরমা নদীর শাহজালাল তৃতীয় সেতুর ওপর থেকে মাহাকে নদীতে ফেলে দেন সত্মা সালমা বেগম। বিষয়টি দেখতে পেয়ে আশপাশের লোকজন সালমাকে ধরে পুলিশে দেয়। এরপর মাহাকে উদ্ধারে নামে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল। কিন্তু প্রথম দিনের অভিযানে তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। এরপর গতকাল বিকেল ৫টার দিকে নগরের লামাকাজি এলাকায় নদীর তীরে মাহার মরদেহ ভেসে ওঠে।

গ্রামবাসী জানায়, জিয়াউল হকের প্রথম স্ত্রীর সংসারে দুই কন্যাসন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু পুত্রসন্তানের আশায় জিয়াউল প্রথম স্ত্রীকে তালাক দেন। এরপর সালমা বেগমকে বিয়ে করেন। সালমা বেগমের ঘরেও একটি কন্যাসন্তানের জন্ম হয়। সংসারের অভাব-অনটন আর ছেলে না হওয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। সেই কলহের পরিণতি হিসেবে নদীর পানিতে ছটফট করে প্রাণ দিতে হলো মাহাকে।

মন্তব্য