kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩ ডিসেম্বর ২০২০। ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

অভয়নগরে ছাত্রলীগের প্রতিবাদ মিছিলে বোমা বিস্ফোরণ ও গুলিবর্ষণ

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি   

৪ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যশোরের অভয়নগরে নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান মিলনকে (২৮) কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে সেই মিছিলে বোমা বিস্ফোরণ ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এতে কেউ হতাহত না হলেও ব্যবসায়ী ও পথচারীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার বিকেলে নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান মিলনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে সন্ত্রাসী বেল্লাল আহম্মেদ বাবু, শাহ আলম, রিপন গাজী, মুরাদ হোসেন, মানু ও হৃদয়সহ অন্যরা। এ ঘটনার জন্য ছাত্রলীগ নেতারা রাজঘাট-নোয়াপাড়া শিল্পাঞ্চল শাখা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক রবিন অধিকারী বেচাকে দায়ী করেন। স্থানীয় এমপি রণজিত রায়ের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত বেচার বক্তব্য জানার জন্য বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি।

এদিকে মিলনের ওপর হামলার প্রতিবাদে বুধবার বিকেলে অভয়নগর উপজেলা ও নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের উদ্যোগে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় চত্বরে এক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। অভনগর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক শাহ্ খালিদ মামুনের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী, যশোর এমএম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী তৌহিদুর রহমান, বাঘারপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বায়েজিদ হোসেন, যশোর জেলা ছাত্রলীগ নেতা মোমেল হোসেন প্রমুখ।

প্রতিবাদ সমাবেশে ইকবাল শাহী বলেন, মিলনের ওপর হামলাকারী চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক কারবারি বেল্লাল আহম্মেদ বাবু, শাহ আলম, রিপন গাজী, মুরাদ হোসেন, মানু ও হৃদয়সহ তাদের হোতাকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আটক করতে না পারলে যশোর জেলার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধসহ কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল নওয়াপাড়া রেলস্টেশন বাজার প্রদক্ষিণ শেষে ফেরার পথে ইউসিবিএল ব্যাংকের সামনে পৌঁছলে পর পর তিনটি বোমার বিস্ফোরণ ও তিন রাউন্ড গুলিবর্ষণ করা হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় নওয়াপাড়ায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

অভয়নগর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এখন পর্যন্ত মিলনের পক্ষ থেকে কোনো মামলা বা অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

এদিকে কামরুজ্জামান মিলনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে আজ রাতেই ঢাকায় স্থানান্তর করা হতে পারে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

 

 

মন্তব্য